কলকাতা পুরসভার উদ্যোগে ও স্থানীয় কাউন্সিলর অসীম বসুর তত্ত্বাবধানে যদুবাবুর বাজারে বসানো হল জীবাণুমুক্তকরণ গেট। রবিবার স্যানিটাইজ চ্যানেলের উদ্বোধন করেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। এবং সঙ্গে ছিলেন দক্ষিণ কলকাতার সাংসদ মালা রায় ও স্থানীয় কাউন্সিলর অসীম বোস।

আরও পড়ুন, লকডাউনে কাজ হারিয়েছেন আইনজীবীরা, সাহায্য়ে এগিয়ে এল বার কাউন্সিল


জানা গিয়েছে,  লকডাউন চললেও বাজারগুলিতে মানুষের ভিড় হচ্ছে। তবে সংক্রমণরুখতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ, পুরসভা ও স্বাস্থ্য দফতর। সেই প্রচেষ্টায় ভবানীপুর জগুবাবুর বাজারে এবার তৈরি হয়ে গেল স্যানিটাইজ চ্যানেল।স্যানিটাইজেশন চ্যানেল বা জীবাণুমুক্তকরণ গেট দিয়েই একমাত্র ক্রেতারাই প্রবেশ করতে পারবেন। ক্রেতারা ও বেরোনোর জন্য রাখা হয়েছে ২ টি গেট। বেরোনোর গেটেও থাকছে স্বেচ্ছাসেবী কর্মীরা। হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড দ্রবনের মাধ্যমে জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই শহরের ৩ থেকে ৪ জায়গায়  বসানো হয়েছে এই গেট। তবে করোনা মোকাবিলায় শহরের এখনও প্রায় ৭০ টি জায়গায় বসানো হবে এই জীবাণুমুক্তকরণ গেট। 

আরও পড়ুন, লকডাউনে ছবি দেখে শিউরে উঠবেন আপনি, নিউটাউনের মাছ বাজারে 'শুধুই মাথা'

 

অপরদিকে, কলকাতার মেয়র এদিন জানিয়েছেন, 'এই টানেলের মধ্যে দিয়ে যাওয়ার সুবিধা হল, কারও সঙ্গে স্পর্শ হলেও এই স্যানিটাইজার সংক্রমণ রুখতে পারবে। আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো এই স্যানিটাইজার। এছাড়া যারা বাজারে টাকা দেবেন তাদের টাকা পয়সা একাধিক হাতে লাগলেও সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়বে না।' পাশাপাশি তিনি আরও একবার মনে করে দিয়েছেন শহরবাসীকে, 'সবাইকে সামাজিক দুরত্ব মানতেই হবে। মুখে মাস্ক পড়ে বেরোতেই হবে।' 

 

  'হটস্পট' এলাকা থেকে আসায় প্রসুতিকে ফিরিয়ে দিল এনআরএস, চরম যন্ত্রনা নিয়ে ঘরেই প্রসব-মৃত সদ্যোজাত

করোনার কোপ এবার সেন্ট্রাল মেডিক্যাল স্টোরে, বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি শীর্ষ স্বাস্থ্যকর্তা

 করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্য়ু ক্যানসার রোগীর,আতঙ্ক ছড়াল রাজারহাটের হাসপাতালে