প্রতীক্ষার অবসান। অবশেষে নিজের শহরে পা রাখলেন নোবেলজয়ী অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার সন্ধে যখন দমদম বিমানবন্দর থেকে তিনি বাইরে এলেন, ততক্ষণে বাংলার কৃতী সন্তানকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে বাইরে ভিড় জমিয়েছেন বহু মানুয। রাজ্য সরকারের তরফে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে স্বাগত জানাতে হাজির ছিলেন কলকাতার মেয়র ও মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।  বিমানবন্দর থেকে সোজা বালিগঞ্জে বাড়িতে চলে যান অভিজিৎ।  আগামীকাল ফের আমেরিকায় ফিরে যাবেন তিনি।

উৎসবের আয়োজন সারা।  নোবেলজয়ীর অপেক্ষায় প্রহর গুনছিল তিলোত্তমা।  সকাল থেকে বালিগঞ্জের সপ্তপর্ণী আবাসনে ভিড় বাড়ছিল পাড়া-প্রতিবেশী, পরিচিতদের। অনেকেই অভিজিতের মা-কে শুভেচ্ছা জানিয়ে যান। মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের তরফে কবিতা লেখা একটি পোস্টকার্ডও পৌছে যায় নোবেলজয়ীর কলকাতায় ঠিকানায়। অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ক্লাবের আজীবন সদস্যপদ দেওয়ার জন্য তাঁর বালিগঞ্জে বাড়িতে হাজির হন ইস্টবেঙ্গল কর্তারাও। অবশেষে এল সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিমানবন্দর থেকে রাজ্য সরকারের বিশেষ ব্যবস্থাপনায় বালিগঞ্জের বাড়িতে পৌঁছন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়।  শাঁখ বাজিয়ে তাঁকে বরণ করে নেন আবাসনের বাসিন্দারা।

নোবেল জয় করে নিজের শহরে ফিরেছেন।  রাজ্যপাল-মন্ত্রী, বন্ধুবান্ধব সকলে একবার দেখা করতে চান অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে। কিন্তু হাতে সময় যে বড্ড কম! বুধবার গভীর রাতে ফের আমেরিকা ফিরে যাবেন তিনি। এখনও পর্যন্ত যা খবর, বুধবার সকালে নিজের স্কুল সাউথ পয়েন্ট ও প্রেসিডেন্সি কলেজে যাবেন অভিজিৎবাবু।  তাঁর সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। রাজভবনের তরফে পরিবারকে জানানো হয়েছে, অভিজিৎবাবু যদি সময় দিতে না পারেন, সেক্ষেত্রে রাজ্যপাল নিজে বালিগঞ্জে বাড়িতে গিয়ে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে চান।  এদিকে আবার তাঁর সম্মানে বুধবার সকালে একটি অনুষ্ঠান করতে চেয়ে নোবেলজয়ীর মায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন বালিগঞ্জের সপ্তপর্ণী আবাসনের বাসিন্দা। সময় পেলে অভিজিৎবাবু সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারেন বলে জানা গিয়েছে।  এমনকী, যৌবনে অভিজিৎবাবুকে যেখানে থাকতেন, সেই মহানির্বাণ মঠ রোডের বাসিন্দারাও চাইছেন, অন্তত একবার সেখানে যান নোবেলজয়ী। তবে সময়ের অভাবে  এবার আর পুরানো পাড়ায় অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় যেতে পারবেন না বলে সূত্রের খবর।  

তখনও নোবেল প্রাপক হিসেবে তাঁর নাম ঘোষণা হয়নি।  নিজের বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ১৮ অক্টোবর দিল্লিতে  আসার কথা ছিল অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। পূর্ব নির্ধারিত সূচি মেনেই তিনি দেশে ফিরেছেন। কিন্তু  নোবেল জয়ের পর বাংলার এই অর্থনীতিবিদকে ঘিরে এখন দেশের মানুষের উৎসাহ তুঙ্গে। বুধবার  সকালে দিল্লিতে অভিজিৎবাবুর সঙ্গে দেখা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।  শুভেচ্ছা জানিয়ে তাঁর ভূয়সী প্রশংসাও করেছেন মোদী।