রাজনৈতিক জীবনে বহু সংগ্রাম করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। নিজের হাতে গড়ে তুলেছিলেন সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস। মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে জন্ম নিয়েও দীর্ঘ সংগ্রামের পর আজ তিনি সাফল্য়ের শিখরে। কেন্দ্রে কংগ্রেস জমানা থেকে প্রথমবার সাংসদ হয়েছিলেন যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে। রেলমন্ত্রীও ছিলেন। ৩৪ বছরের বাম জমানার অবসান তাঁর হাত ধরেই।

আরও পড়ুন-বাংলার জনপ্রিয় জননেতা শুভেন্দু, জেনে নিন তাঁর রাজনৈতিক উত্থান ও সম্পত্তির পরিমাণ

মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের রাজনৈতিক কেরিয়ার

১৯৮৪ সালে যাদবপুর কেন্দ্র থেকে প্রথমবার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন। ১৯৮৯ সালে ওই কেন্দ্র থেকে পরাজিত হয়েছিলেন তিনি। ১৯৯১ সালে পুনরায় সাংসদ নির্বাচিত হন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। ১৯৯৭ সালে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। ২০০৯ সালে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করে কলকাতা দক্ষিণ কেন্দ্র থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়ে রেলমন্ত্রী হন মমতা। 

আরও পড়ুন-জবকার্ড চাইতে গেলে দুই গৃহবধূকে 'বেধড়ক মার' বিজেপি নেতার, তাঁদের শ্লীলতাহানির অভিযোগ

৩৪ বছরের বাম জমানার অবসান

নন্দীগ্রাম ও সিঙ্গুর আন্দোলনকে হাতিয়ার করে বাম রাজনীতির বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন তৃণমূল নেত্রী। ২০১১ সালের বিধানসভা ভোটে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করে বাংলায় ২৯৪টি আসনের মধ্যে ২২৭টি আসনে জয়ী হন মমতা। বাম রাজনীতির অবসান ঘটিয়ে পশ্চিমবঙ্গের প্রথম মহিলা মুখ্যমন্ত্রী হন তিনি। ২০১২ সালে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট প্রত্যাহার করেন মমতা। ২০১৬ সালে দ্বিতীয়বার মুখ্যমন্ত্রীর পদে আসীন হন তৃণমূল নেত্রী।

আরও পড়ুন-পুকুরে নিখোঁজ ছাত্রীর দেহ উদ্ধার, কিশোরীর মৃত্যু ঘিরে ঘণীভূত রহস্য

মমতার সম্পত্তির পরিমাণ

একাধিক বার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন। রাজনৈতিক জীবনে দীর্ঘ পথ লড়াই করে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। নির্বাচন কমিশন থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী তাঁর বর্তমান সম্পত্তির পরিমাণ ৩০.৪৫ লক্ষ টাকা।