শহর কলকাতায় আবারও অঙ্গ প্রতিস্থাপন হল। মালদহের বছর ছাব্বিশের এক তরুণীর অঙ্গ প্রতিস্থাপনে প্রাণ ফিরে পেলেন তিন জন মানুষ। মালদহের ওই তরুণী গত ৮ নভেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হন। তারপরেই তিনি আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি হন, কলকাতার আর এন টেগোর হাসপাতালে। সেখানেই তাঁর ব্রেন ডেথ ঘোষণা করা হয়। আর তারপরেই তরুণীর বাড়ির লোকজন তাঁর অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নেন। তার লিভার ও দুটো কিডনির মাধ্য়মে প্রাণ রক্ষা হয় তিন জনের। 

আরও পড়ুন, নিঃসঙ্গ মায়ের জন্য জীবনসঙ্গী চাই, ফেসবুকে ভাইরাল ছেলের পোস্ট

মালদহের ওই তরুণীর লিভার প্রতিস্থাপন করা হয়, আর এন টেগোর হাসপাতালেই। ৩৭ বছরের এক ব্য়ক্তি লিভার সিরোসিসে ভুগছিলেন। তিনিও ওই হাসপাতালেই ভর্তি ছিলেন। তরুণীর লিভার দানে প্রাণ ফিরে পান তিনি। ওই তরুণীর দাদা জানিয়েছেন, বোনকে আর ফিরে না পেলেও বোনের অঙ্গগুলি পেয়ে যদি কেউ প্রাণ ফিরে পান, ওই তিনজনের মধ্য় দিয়েই বেঁচে থাকবে তাদের বোন। 

আরও পড়ুন, দু'সপ্তাহে দ্বিগুণ ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা, বলছে স্বাস্থ্য দফতরের রিপোর্ট

পূর্ব ভারতে  আর এন টেগোর হাসপাতালে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার লিভার প্রতিস্থাপন হল। চলতি বছরের জুলাই মাসে হাওড়ার উদয়নারায়ণপুরের বাসিন্দা অঞ্জনা ভৌমিকের  অঙ্গে প্রাণ ফিরে পেয়েছিলেন তিনজন। এবার মালদহের এই তরুণীর  অঙ্গ প্রতিস্থাপনের মাধ্য়মে আবার সাক্ষী থাকল শহর কলকাতা।