সংঘাতের মাঝেই সংসারের বার্তা। সব ভুলে রাজভবন গেলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়। রাজ্য়পালের সঙ্গে বৈঠক শেষে পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, নেহাত সৌজন্যমূলক সাক্ষাতের জন্যই এসেছিলেন তিনি। তবে নিয়ম মেনে বাজেট অধিবেশনের  বিষয়টাও জানিয়ে  গিয়েছেন রাজ্য়পালকে। 

এদিন রাজ্য়পাল নিয়ে  বিতর্কিত কিছু শোনা যায়নি পার্থবাবুর মুখে। রাজ ভবন থেকে বেরিয়ে তিনি বলেন, আগে তো প্রতিদিনই রাজভবনে আসতাম, এখন সময় পাই না৷ তবে পরিষদীয় মন্ত্রী হিসেবে আমার একটা কর্তব্য আছে৷ আগামী ৭ তারিখ থেকে বাজেট অধিবেশন, সেটা জানানো আমার কর্তব্য৷ সেই বিষয় রাজ্যপালকে বলেছি৷ এদিন দুপুর ৩টে নাগাদ রাজভবনে ধনখড়ের সঙ্গে আলোচনায় বসেন তৃণমূলের মহাসচিব। 

আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে চলেছে রাজ্য বিধানসভার বাজেট অধিবেশন৷ নিয়ম অনুসারে সেখানে  প্রথমে বক্তব্য় রাখেন রাজ্য়পাল। রাজ্য়  রাজনৈতিক মহলের  ধারণা, সেই বিষয়েই এদিন রাজ্যপালের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর কথা হয়েছে। সম্প্রতি শাসক দলের সঙ্গে রাজ্য়পালের সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকেছে। মূলত, রাজ্য়পালের স্ত্রীর বিষয়েও মন্তব্য় করতে  ছাড়েনি তৃণমূলের নেতারা। যা নিয়ে দুঃখপ্রকাশ করেন রাজ্য়পাল জগদীপ ধনখড়। কিন্তু তাতেও কোনও কাজ হয়নি। উল্টে রাজ্য়পালের মাথা ঠিক নেইয়ের মতো কথা বলেছেন খোদ শিক্ষামন্ত্রী।