সল্টলেক সেক্টর ফাইভ এর মহিষবাথান একটি পুকুর ভরাটকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল এলাকায়। মহিলা মাছ চাষীদের দাবি, দীর্ঘদিন ধরে তারা এই জলাশয় দুটোতে মাছ চাষ করেন। দীর্ঘদিন ধরেই এলাকার একটি ক্লাব মহিষবাথান নবজাগরণ সংঘ পুকুর ভরাটের চেষ্টা করে যাচ্ছে। কোটি কোটি টাকা জমির মূল্য বলে এলাকারই পুকুর তারা ভরাট করে প্রোমোটারকে দেবেন বলে অভিযোগ করেছেন মাছ চাষীরা। 

ইতিমধ্যেই বিষয়টি নিয়ে ইলেকট্রনিক্স কমপ্লেক্স থানা ও বিধাননগর পৌরনিগমের কাছে অভিযোগ জানানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তারা একটি ডাম্পার পাঠিয়ে পুকুর পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করতে এসেছিলেন। কিন্তু ক্লাবের বাধায় আবার তারা ফিরে যান। মহিলা মাছ চাষীদের দাবি, ওই এলাকারই পৌর পিতা বাণীব্রত ব্যানার্জি এর পেছনে রয়েছে। বড় কোনও কেউকেটার মদতেই চলছে এই ভরাটের কাজ। 

মাছ চাষীদের অভিযোগ, রবিবার রাতে একটি শিশু উদ্যান ভেঙে ডাম্পার ঢুকিয়ে পুকুর ভরাটের চেষ্টা হয়েছে। পুকুরের বেশ কিছুটা অংশ ভরাট করা হয়েছে জোর করে। এই বিষয়ে ক্লাব কর্তৃপক্ষ কোনওভাবেই মুখ খুলতে নারাজ। পৌর নিগমের মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তীকে জানালে তিনি জানান, পুকুর ভরাট হবে না। এই ঘটনায় আতঙ্কিত মৎস চাষীরা কান্নায় ভেঙে পড়েছেন। তাদের দাবি, ২৫ হাজার টাকার ছোট মাছ ওই পুকুরে ছেড়েছিলেন তাঁরা।  ওই মাছ বড় হলে কমপক্ষে লাখ টাকার ব্যবসা দিত। কিন্তু বোল্ডার ফেলে ওই পুকুর ভরাট করায় বেশিরভাগ মাছ মরে গেছে।