কলকাতায় একটি বেসরকারি হাসপাতাল পুরোপুরি বন্ধ করে দিল স্বাস্থ্য ভবন। চার্ণক হাসপাতালকে বন্ধ করে দিয়ে ইতিমধ্য়েই সেখানের প্রায় শতাধিক চিকিৎসক-নার্স কর্মী এবং রোগীকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।  

আরও পড়ুন, পার্ক সার্কাসের বেসরকারি হাসপাতালে প্রৌঢ়ের মৃত্য়ু, করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই অভিযোগ তুলল পরিবার


স্বাস্থ্য ভবন সূত্রের খবর, সম্প্রতি চার্ণক হাসপাতালেই এক রোগী ডায়ালিসিস করতে এসেছিলেন। ডায়ালিসিস হয়ে গেলে তিনি ফিরে যান। কিন্তু পরে অন্য একটি শহরের বেসরকারি নার্সিংহোমে তার মৃত্যু হয়। মৃত্য়ুর পর তার লালা রস পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তিনি নোবেল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে সংক্রমিত।




আরও পড়ুন, এমআর বাঙ্গুরের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৫ রোগীর মৃত্যু, কারণ জানতে অপেক্ষা নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টের

 
চার্ণক হাসপাতালের সঙ্গে  এরপরই যোগাযোগ করা হয়। জানতে চাওয়া হয়, ডায়ালিসিসের দিন আর কোন কোন রোগী ডায়ালিসিস রুমে, ওই করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে এসেছিলেন। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্য়েই সংশ্লিষ্ট কয়েকজনের লালারস পরীক্ষা করে নোবেল কোন ভাইরাসের সংক্রমণ মিলেছে।তবে এ প্রসঙ্গে সত্যতা স্বাস্থ্য ভবন সূত্রে যাচাই করা সম্ভব হয়নি। এরপরই প্রশাসন নড়েচড়ে বসে। স্বাস্থ্য ভবনের তরফে হাসপাতালটিকে সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করে দেওয়া হয়। গোটা হাসপাতালে জীবাণুমুক্ত করতে সানিটাইজড করা হচ্ছে। 



 

 

এনআরএস-র আরও ৪৩ জন স্বাস্থ্য কর্মীর রিপোর্ট নেগেটিভ, স্বস্তিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

করোনার রোগী সন্দেহে বৃদ্ধকে বেধড়ক মার, স্যালাইনের চ্যানেল করা হাতে দড়ি পড়ালো মানিকতলাবাসী

করোনায় আক্রান্ত এবার কলকাতার ২ ফুটপাথবাসী, হোম কোয়ারেন্টাইনে উদ্ধারকারীরা