বেহালার যে মাঠে ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেট অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় খেলে বড় হয়েছে। সেই আস্ত মাঠটাই নাকি থাবা বসিয়েছে প্রোমোটাররা। লকডাউনের সময় থেকেই মাঠটি বন্ধ রয়েছে বলে দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের। লকডাউনের পর মানুষ সাধারণ জীবনযাপন করার চেষ্টা করছে। কিন্তু ওই মাঠের গেট খুলে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। তার জেরে সমস্যায় পড়েছেন প্রাতঃভ্রমণকারীদের থেকে ছোট ছোট শিশুরা। সকালে প্রাতঃভ্রমণ করতে বাধার মুখে পড়ছেন স্থানীয়রা। পাশাপাশি, খেলা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন কচিকাচারাও।

আরও পড়ুন-দিলীপ ঘোষকে কালো পতাকা দেখানো ঘিরে উত্তেজনা, বর্ধমানে পুলিশের লাঠিচার্জ

দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকায় মাঠটি প্রোমোটারদের কব্জায় চলে গিয়েছে বলে দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের। এরই প্রতিবাদে রবিবার সকালে বিক্ষোভ দেখান প্রাতঃভ্রমণকারীরা।পাশাপাশি, সেই প্রতিবাদে সামিল হয় কচিকাচারাও। ঘটনাস্থল চৌরাস্তা ক্সফোর্ড মিশন মাঠ। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, স্থানীয়রা ছাড়াও আশেপাশের বহু লোক এখানে মুর্নিং ওয়াক করতে আসেন। খেলার সুযোগ পান কচিকাচারাও। কিন্তু লকডাউনের সময় থেকে বন্ধ থাকায় মাঠটি প্রোমোটারদের কব্জায় চলে গিয়েছে বলে অভিযোগ। কেননা, প্রথমে এখানে ঠিক হয়েছিল এখানে আবাসন তৈরি হবে। স্থানীয় বাসিন্দারা প্রতিবাদ করলে তখন প্রোমোটার তাঁদের জানায় এখানে স্কুল হবে।

আরও পড়ুন-আমপানের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত সুন্দরবন, নতুন করে ম্যানগ্রোভ চারা লাগানো শুরু

এই টালবাহানার মধ্যে সৌরভ গাঙ্গুলি স্মৃতি বিজড়িত মাঠ নিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন প্রাতঃভ্রমণকারীরা। ওই মাঠ সংক্রান্ত মামলায় স্থগিতাদেশ দেয় হাইকোর্ট। এই অবস্থায় করোনা আবহে লকডাউনের সময় মাঠের গেটে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু, লকডাউন উঠে গেলেও এখনও মাঠের তালা খোলায় প্রাতভ্রমণকারীদের দাবি, প্রোমোটাররা দখল করে নিয়েছে এই মাঠটি। এরই প্রতিবাদে রবিবার সকালে বিক্ষোভ দেখান প্রাতঃভ্রমণকারীরা।