শপথ গ্রহণ হয়েছিল বাড়িতে বসেই। করোনা পরিস্থিতিতে রাজভবনে গিয়ে সশরীরে শপথ নেননি রথীন ঘোষ। তবে বুধবার খাদ্য দফতরের দায়িত্বভার গ্রহণ করে বড় ঘোষণা করলেন রাজ্যের নতুন খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ। তাঁর ঘোষণা, রাজ্যে এবার শুরু হবে দুয়ারে খাদ্য প্রকল্প। 

এতদিন তিনি মধ‍্যমগ্রাম কর্পোরেশনের প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন। বুধবার রথীন ঘোষ খাদ্য দফতরের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। তিনি সংবাদমাধ্যমের সামনে বলেছেন আগামী দিনে রাজ্যের খাদ্য দফতর আরও সুন্দরভাবে সাজিয়ে তোলা হবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাকে যে দায়িত্ব দিয়েছেন তা তিনি পালন করবেন। 

তৃণমূল সরকারের দ্বিতীয় টার্মে এই খাদ্য দফতরের দায়িত্ব ছিলেন হাবরা বিধানসভার বিধায়ক ও রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। এদিন খাদ্যমন্ত্রী বলেছেন তার পূর্বসূরি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের কাছ থেকে খাদ্য দফতরের নানা বিষয় জেনে নেবেন। তার সঙ্গে পর্যালোচনা করেই আগামী দিনে খাদ্য দফতর আরও সুন্দরভাবে সাজাবেন। আগামী দিনের রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের আমলে দুয়ারে দুয়ারে খাদ্য প্রকল্প কর্মসূচির মাধ্যমে মানুষের কাছে পৌঁছে যাবেন বলে জানান খাদ্য মন্ত্রী রথীন ঘোষ।

শারীরিক অসুস্থতার জেরে ভার্চুয়াল শপথ গ্রহণ করেছিলেন মধ্যমগ্রামের বিধায়ক তথা রাজ্যের খাদ্য মন্ত্রী রথীন ঘোষ। মন্ত্রী হওয়ার পর আজ প্রথম তার দফতরে যান তিনি । বাড়ির সামনেই দফতরে যাওয়ার আগে এয়ারপোর্ট থানার পক্ষ থেকে সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। এর পরেই নিজের দফতরের উদ্দেশ্যে রওনা দেন তিনি। দুয়ারে রেশন ও  ডিজিটাল কার্ড সঠিক বন্টন ইস্যুগুলি নিয়ে বুধবারই প্রথম বৈঠক করবেন বলে জানান খাদ্যমন্ত্রী।