বৃহস্পতিবার শিশু দিবস উপলক্ষে, শহরের একটি রেস্তরায় পালিত হল  বিশেষ শিশুদের নিয়ে অনুষ্ঠান। অভিরূপ সেনগুপ্ত এবং প্রয়াসের তরফেই এই উদ্য়োগ। শিশুদেরকে সঙ্গে নিয়ে কেক কেটে, মধ্য়াহ্ণ ভোজ আয়োজনের মধ্য় দিয়েই উদযাপন করা হয় আজকের এই বিশেষ দিন। 

আরও পড়ুন, শুরু হল আর্ন্তজাতিক বিজ্ঞান চলচিত্র উৎসব, শহরে স্কুল পড়ুয়াদের ছবি দেখাবে বিআইটিএম
   
ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পল মন খুললেন আমাদের সংবাদমাধ্য়মের কাছে। তিনি জানালেন, শুধুমাত্র শিশু দিবসই নয়, বছরের সবকটা দিনই হোক শিশুদের আনন্দের দিন। বছরের অন্য়দিনগুলিতে পথ শিশুরা ফেলে দেওয়া খাবার তুলে খাবে,আর শুধুমাত্র শিশু দিবসের দিনটায় তাদের জন্য় শহরের বিভিন্ন প্রান্তের এনজিও-রা খাবার খাওয়াবে, এমন দিন কখনই যেন না আসে। তবে প্রয়াসের এই উদ্য়োগে অংশ নিতে পেরে তিনিও যথেষ্টই খুশি।   ছোটবেলার স্মৃতি টেনে বললেন, সারাবছরের মধ্য়ে শিশু দিবসের দিনটায় তাদের স্কুলে সাদা পোশাকের বদলে রঙিন পোশাক পরার অনুমতি মিলত। অভিভাবকদের উদ্য়েশ্য়েও জানালেন, শিশুরা হলেন ফুলের মত। তিনি আন্তরিকভাবে চান,তারা পড়াশোনা করার পাশাপাশি মানুষের মত মানুষ হোক।

আরও পড়ুন, দূষণ কমাতে কলকাতা পুরসভার নয়া উদ্য়োগ, আসছে অত্য়াধুনিক প্রযুক্তির বায়ু পরিশোধক

অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত জানালেন, তিনি বরাবরই  তার জন্মদিনের দিনটা বিশেষ শিশুদের সঙ্গেই কাটান। কিন্তু এবার সেইসময়টা তিনি ছিলেন না বলেই, আজকের দিনটা যেন তার কাছে আরও বেশি আনন্দের হয়ে উঠেছে। তাই অবশ্য়ই আজকের দিনটা ,তার কাছে একটা অন্য়তম উপহার। অভিরূপ সেনগুপ্ত জানালেন, বছরের এই সময়টার জন্য় তিনি অপেক্ষা করে থাকেন। আজকের দিনটায় বিশেষ শিশুদেরকে আনন্দ দিতেই এই অপেক্ষা। প্রতিবছরই তারা  শিশু দিবস পালন করেন তবে এবার একটু অন্য়ভাবে করার জন্য় এই  উদ্য়োগ। যাতে এই বিশেষ শিশুরা অনুভব করতে পারে তারাও এই সমাজেরই অঙ্গ। ভবিষ্য়তে তার ইচ্ছে আছে, একই সঙ্গে  বিশেষ শিশু ও তাদের অভিভাবকরা যাতে এক ছাদের তলায় এক বাড়িতে থাকতে পারে সেরকম কিছু ব্য়বস্থা করা। সঙ্গে এটাও জানালেন, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত তাদের সঙ্গে প্রথম থেকেই পাশে আছেন।  শিশু দিবস উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রিচা শর্মা, রেশমি মিত্র, ঋদ্ধি বন্দ্য়োপাধ্য়ায় আরও অনেকে।