দূষণের মোকাবিলার জন্য় চীনের এয়ার পিউরিফায়ার মডেলকেই অনুসরণ করছে কলকাতা পুরসভা। তবে একেবারেই  সমক্ষমতা সম্পন্ন এয়ার পিউরিফায়ার এবার দেশিয় প্রযুক্তিতে তৈরি  হচ্ছে। আর এবার সেই বায়ু দূষণ কমাতেই কলকাতা পুরসভা আনতে চলেছে  নয়া প্রযুক্তির এই এয়ার পিউরিফায়ার। 

আরও পড়ুন, সকাল-সন্ধ্যায় শীতের আমেজ চলবে, বলছে আবহাওয়া দফতর

চীনের শানসি প্রদেশে জিয়ান শহরে আছে বিশ্বের উচ্চতম এয়ার পিউরিফায়ার। অত্য়াধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি ৩২৮ ফিট উচুঁ এই এয়ার পিউরিফায়ার প্রতিদিন ১০মিলিয়ন ঘনমিটার পরিমানে বাতাসকে পরিশুদ্ধ করে। গাড়ির ধোয়া,শীততাপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্রের নির্গত গ্য়াস সঙ্গে দীপাবলিতে পোড়ানো বাজির ধোঁয়া থেকে কলকাতায় দূষনের মাত্রা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। তাই চীনা প্রযুক্তির এই এয়ার পিউরিফায়ারের পথেই এগোতে চায় কলকাতা পুরসভা। 

আরও পড়ুন, অসম্ভব-কে সম্ভব করার ডাক সত্যরূপের, চাকরি ছেড়ে নয়া পথে বাঙালির ছেলে

কলকাতা পুরসভার মেয়র পারিষদ  (পরিবেশ) দেবাশিষ কুমার জানান যে, বেঙ্গালুরুর এক চিকিৎসক এই এয়ার পিউরিফায়ার তৈরি করেছেন। কলকাতায় একটি ম্যারাথনে প্রথমে চার জায়গায় ৪টি পিউরিফায়ার বসানো হয়েছিল। আশানুরুপ  ফল পেয়ে তারপর পুর ভবনের পাশেও একটি এয়ার পিউরিফায়ার বসানো হয়। এক মাস পর্যবেক্ষণের পর দেখা যায় আগের চেয়ে দূষণের মাত্রা আগের থেকে কমেছে। তিনি আরও জানান যে, ট্রায়ালের রিপোর্ট ইতিমধ্য়েই তারা  দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদকে জমা দিয়েছেন। পর্ষদের বিশেষজ্ঞরা ইতিবাচক সাড়া দিলেই  এই বিষয়ে আরও এগোনো হবে।