রাজীব কুমারকে নিয়েই ক্রমেই স্নায়ুর লড়াই বাড়ছে সিবিআই এবং রাজ্য প্রশাসনের মধ্যে। রবিবারই রাজীবের সন্ধান পেতে নবান্নে সাহায্যে চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। কিন্তু নবান্নে কর্তব্যরত পুলিশকর্মীরা একটি চিঠি ছাড়া বাকিগুলি গ্রহণ করেননি। অন্যদিকে সিবিআই-ও নিজেদের মতো প্রস্তুতি নিচ্ছে। সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্স মুড়ে ফেলা হচ্ছে কড়া নিরাপত্তায়। সেখানে আরও এক কোম্পানি সিআরপিএফ জওয়ানকে নিরাপত্তার জন্য মোতায়েন করা হচ্ছে। 

কলকাতা হাইকোর্ট রাজীব কুমারের গ্রেফতারিতে স্থগিতাদেশ না দেওয়ার পরেই আইপিএস  অফিসারকে হাতে পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে সিবিআই। হাজিরা দেওয়ার জন্য নোটিশ পাঠানো হয়েছে তাঁকে। কিন্তু এখনও খোঁজ নেই রাজ্যের এডিজি সিআইডি-র। উল্টে তিনি ই- মেল মারফত সিবিআই-কে জানিয়েছেন, ছুটিতে থাকার কারণে এখনই তাঁর পক্ষে হাজিরা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। গ্রেফতারি এড়াতে সম্ভবত সোমবারই নতুন করে আদালতের দ্বারস্থ হতে পারেন রাজীব কুমার। সেই সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখে প্রস্তুতও হচ্ছে সিবিআইও। 

আরও পড়ুন- নবান্নে পৌঁছল সিবিআই, বাধা পুলিশের, কার নামে গেল চিঠি, দেখুন ভিডিও

এরই মধ্যে রাজীবকে হাতে পেতে রাজ্য প্রশাসনের উপরেও চাপ বাড়াচ্ছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। রবিবার রাজ্য পুলিশের ডিজি, মুখ্যসচিব এবং স্বরাষ্ট্রসচিবকে উদ্দেশ্য করে লেখা চিঠি নিয়ে নবান্নে পৌঁছে যান দুই সিবিআই আধিকারিক। কিন্তু তাঁদের সেই চিঠি গ্রহণ করতে চাননি নবান্নের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশকর্মীরা। শেষ পর্যন্ত ডিজি-কে লেখা চিঠি গ্রহণ করা হয়। কিন্তু বাকি দু'টি চিঠি নেওয়া হয়নি। সেই চিঠি আজ ফের পৌঁছে দেওয়ার কথা। সূত্রের খবর, রাজীব যেহেতু ছুটিতে রয়েছেন, তাই তাঁর গতিবিধি সংক্রান্ত তথ্য জানতে চেয়েছে সিবিআই। পাশাপাশি, এ দিন দুপুর দুটোতে সিবিআই অফিসে রাজীব কুমারকে পাঠানোর জন্য রাজ্য পুলিশের ডিজি-কে লেখা চিঠিতে অনুরোধ করা হয়েছে। শেষ পর্যন্ত রাজীব কাণ্ড সোমবার কোনদিকে মোড় নেয়, সেটাই এখন দেখার।