ভাইফোঁটার দিন মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে হাজির হয়েছিলেন। তার পরেই রাজ্য সরকারের নিরাপত্তাও ফিরে পেলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। প্রায় আড়াই মাস পরে বিজেপি নেতা শোভনের নিরাপত্তা ফেরানোর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য। আগের মতোই ওয়াই প্লাস নিরাপত্তা পাবেন শোভন। 

২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে প্রথমে মন্ত্রিত্ব এবং পরে মেয়র পদে ইস্তফা দিয়েছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। তার পরেও শোভনের সরকারি নিরাপত্তা বহাল ছিল। কিন্তু এ বছরের অগাস্ট মাসে শোভন বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পরেই কলকাতার প্রাক্তন মেয়রের নিরাপত্তা প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য সরকার। সরকারের এই সিদ্ধান্তে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। এমন কী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মহম্মদ বিন তুঘলকের সঙ্গেও তুলনা করেছিলেন ক্ষুব্ধ শোভন। 

আরও পড়ুন- নিরাপত্তা প্রত্যাহারে ক্ষুব্ধ, মমতাকে মহম্মদ বিন তুঘলক বললেন শোভন

আরও পড়ুন- 'ভুঁড়িটা কি বেড়েছে', শোভনের সঙ্গে কী কী কথা হল মমতার

কিন্তু গত মঙ্গলবার ভাইফোঁটার দিন আচমকাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে হাজির হন শোভন। তাঁকে ফোঁটাও দেন তৃণমূলনেত্রী। শোভনের সঙ্গে ছিলেন তাঁর বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ও। শোভনের সঙ্গে সেদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একান্তে বেশ কিছুক্ষণ কথাও বলেন বলে খবর। স্নেহের কাননকে তিনি দ্রুত কাজে ফেরার নির্দেশ দেন বলেও তৃণমূল সূত্রে খবর। তার পরেই শোভনের নিরাপত্তা ফেরানোর সিদ্ধান্ত যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। 

মমতার কাছে শোভনের ভাইফোঁটা নিতে যাওয়া নিয়ে প্রকাশ্যে কোনও গুরুত্ব না দিলেও নিরাপত্তা ফেরানোর সিদ্ধান্তকে কটাক্ষ করেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এ দিন কলকাতায় তিনি বলেন, 'কাশ্মীর হামলার ভয়ে কি কলকাতায় নিরাপত্তা ফেরানো হল?' এ দিনের পরে তৃণমূলের অন্দরেও কটাক্ষ করে অনেকে বলছেন, 'নিরাপত্তা ফিরল, এবার শোভন কবে ফিরছেন?'