রাজ্য় জুড়ে করোনা রুখতে লকডাউন চলছে। এদিকে এই পরিস্থিতিতে থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত সহ বহু মানুষেরই রক্তের প্রয়োজন। তাই শুক্রবার কলকাতা শহরে একজন বামপন্থী কাউন্সিলের উদ্যোগে আয়োজন করা হয় এক রক্তদান শিবিরের। কিন্তু তারপরেই সংগঠকদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ এই পরিস্থিতিতে রক্তদান শিবিরের আয়োজন করে হেনস্থার শিকার হওয়ার প্রতিবাদ জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখলেন ড. সুজন চক্রবর্তী। 

আরও পড়ুন, এমআর বাঙ্গুরের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৫ রোগীর মৃত্যু, কারণ জানতে অপেক্ষা নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টের


শহরে একজন বামপন্থী কাউন্সিলের উদ্যোগে আয়োজিত রক্তদান শিবিরে অনুমোদিত ৩০ জন রক্তদান করার পর সংগঠকদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ এরপরই বাম নেতা সুজন চক্রবর্তী মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন৷ সুজন চক্রবর্তী জানিয়েছেন সেখানে, সরকার রক্তের যোগান দিতে ব্যর্থ। অথচ রক্তদান শিবির করতেও বাধা দিচ্ছে। রক্তদান শিবির করলে চোখ রাঙাচ্ছে। এমনকি গ্রেফতারও করছে। এই বিষয়েই প্রতিবাদ জানিয়ে চিঠি লিখেছেন বর্ষীয়ান সিপিআইএম নেতা।  

আরও পড়ুন, পার্ক সার্কাসের বেসরকারি হাসপাতালে প্রৌঢ়ের মৃত্য়ু, করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসতেই অভিযোগ তুলল পরিবার

অপরদিকে তিনি আরও জানিয়েছেন,  সরকারের পদক্ষেপগুলি মানুষকে খুবই বিপদে ফেলছে৷ রাজ্যজুড়ে চিকিৎসার অবস্থা যথেষ্ট খারাপ৷ মানুষ অসহায়৷ তথ্য গোপনের ধাক্কা এবং সুরক্ষা ব্যবস্থার অভাবে চিকিৎসক, সুপার, স্বাস্থ্যকর্মীরাও অসহায়তার শিকার৷অবিলম্বে এই বিষয়ের প্রতি নজর দেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। উল্লেখ্য়  সম্প্রতি সরকারি ব্লাড ব্যাংকগুলি সামাজিক রক্তদান শিবির বাতিল করে দিচ্ছে৷ উল্লেখ্য়, গত ৪ এবং ৫ এপ্রিল, ২০২০ কলকাতা কেন্দ্রিক কয়েকটি জেলাতে এই রকম ৭৬ টি রক্তদান শিবির সরকার বাতিল করেছে৷
 

 

এনআরএস-র আরও ৪৩ জন স্বাস্থ্য কর্মীর রিপোর্ট নেগেটিভ, স্বস্তিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

করোনার রোগী সন্দেহে বৃদ্ধকে বেধড়ক মার, স্যালাইনের চ্যানেল করা হাতে দড়ি পড়ালো মানিকতলাবাসী

করোনায় আক্রান্ত এবার কলকাতার ২ ফুটপাথবাসী, হোম কোয়ারেন্টাইনে উদ্ধারকারীরা