শহর কলকাতায়, গত দু দিনের থেকে কিছুটা নেমেছে তাপমাত্রার পারদ। মঙ্গলবার সেই তাপমাত্রা নেমে দাড়িয়েছে ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। ঘূর্ণিঝড় টেনে নিচ্ছে উত্তুরে হাওয়া। তাই এ রাজ্যে কমেছে উত্তর-পশ্চিম হাওয়ার প্রভাব। পূবালী হাওয়ায় বেড়েছে তাপমাত্রা। অন্য়দিকে প্রায় প্রতিদিনই আকাশ থাকছে মেঘলা। যার জন্য় বেলা বাড়লে সূর্য রশ্মির তাপ  মেঘে প্রতিফলিত হয়ে বারবার ফিরে আসছে। আর গরম হাওয়া আর পিছু ছাড়ছে না, শহর কলকাতার।

 

 

আরও পড়ুন, 'রাজ্যে শান্তিরক্ষায় পাশে থাকুন', রাজ্যপালকে চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর

আবহাওয়া দফতরের খবর অনুযায়ী, মঙ্গলবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকতে পারে ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পারদ ছুঁতে পারে ১৮  ডিগ্রি সেলসিয়াস। শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯৬  শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৫৩ শতাংশ।  বেলা বাড়ার সঙ্গে তাপমাত্রা খানিকটা বেড়ে ২১  ডিগ্রি সেলসিয়াস। 

আরও পড়ুন, গুজব ছড়ালেই ব্য়বস্থা,হিংসা রুখতে ২৪ ঘণ্টার হেল্প লাইন পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের

দক্ষিনের বাতাসের জন্য় ডিসেম্বর-দুপুরে ঘাম হচ্ছে শহরবাসীর। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা বেড়ে হয়েছে ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে। সকাল থেকে তাই আর্দ্রতার পাশাপাশি রোদের তেজও বাড়বে। সাত বছর আগে, ডিসেম্বরের এই সময়টাই কাঁপুনি দিয়ে শীত পড়েছিল। কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমেছিল সেবার  ১৪.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, স্বাভাবিকের থেকে ৩ ডিগ্রি নীচে। সোমবার তাপমাত্রা ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। যা স্বাভাবিকের থেকে বেশি।  এদিকে আবহাওয়া বিজ্ঞানীদের অনুমান অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বরের পর কয়েকদিন জাঁকিয়ে শীত পড়ার কথা ছিল। সেই কথা অনুযায়ী ততটা ঠান্ডার সৌভাগ্য় এখনও শহরবাসীর হয়নি। তবে ঝড় কাটলেই আবার পুরোপুরি ঠান্ডা উপভোগ করবে কলকাতাবাসী।