অবশেষে স্বস্তি পেয়েছে বাংলার মানুষ। জুলাই মাসের একেবারে শেষে এসে কাঠফাটা রোদ থেকে রেহাই পাওয়া গিয়েছে। আলিপুর হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, এই মুহূর্তে মৌসুমী অক্ষরেখা পশ্চিম রাজস্থান, সম্বলপুর ও ওড়িশার চাঁদবালি হয়ে পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত রয়েছে। 

আর একটি ঘূর্ণাবর্ত গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ও উত্তর ওড়িশা উপকূলে রয়েছে।  এর ফলে দক্ষিণবঙ্গে কখনও টানা ভারী আবার কখনও বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে। আগামীকাল থেকে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কমলেও এখনই তা থামবে না বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। 

৩ অগস্ট থেকে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে বলে জানা গিয়েছে। এই বৃষ্টি আগামী ৬ অগস্ট পর্যন্ত চলবে। তবে বেশি বৃষ্টি হবে ওড়িশা উপকূলে। যেহেতু মৌসুমী বায়ু অনেক সক্রিয় তাই মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে আগামী ২৪ ঘণ্টা নিষেধ করা হয়েছে। 

তবে এরই মধ্যে সবচেয়ে খুশির খবর হল, বৃষ্টির ফলে কলকাতায় তাপমাত্রা খুব একটা আর বাড়বে না। উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টি কমেছে। তবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি চলবে। 

উল্লেখ্য জুলাই  মাসের শেষে এসে বর্ষার বৃষ্টির দেখা পেয়েছে মানুষ। কিন্তু এই সময় থেকেই বাঙালির পুজোর কেনাকাটা শুরু হয়ে যায়। তাই এখন বাঙালির চিন্তার বিষয় হল, পুজোতে কি বৃষ্টি ভাসাবে।