গভীর রাতে হুলুস্থুল কাণ্ড আর জি কর হসপাতালে। দমকল থেকে শুরু করে পুলিশ এসে ভীড় জমায় সেখানে। কারণ হিসাবেই উঠে আসে ডাকাতি মামলার আসামি পলাতকের গল্প। হাসপাতালের ৬ তলার মেডিসিন ওয়ার্ডের থেকে পালিয়ে যায় সেই অপরাধী। তার পরেই শুরু হয় সেখানে শোরগোল।

রাজু মন্ডল নামে এই ডাকাতি মামলার আসামিকে বেশ কিছু সমস্যার কারণে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়ছিল। তবে সে যে এমন কিছু ঘটাতে পারে তা কেউই কল্পনা করতে পারেননি। প্রথমটায় মনে করা হয়েছিল রাজু ছ'তলার পাইপের আড়ালে লুকিয়ে আছে। সেই মত খবর পাঠানো হয় দমকলেও। তবে অনেক তল্লাশির পরেও হাসপাতাল চত্ত্বরে কোথাও দেখা মেলেনি তার।

জানা গিয়েছে, সোমবার রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ বাথরুমে যায় রাজু। সেখান থেকেই তারপর পগাড়পার সে। বাথরুম যাওয়ার পরে পেরিয়ে যায় বেশ কিছুটা সময়। রাজু ফিরে আসছেনা দেখে সেখানে কর্মরত পুলিশের সন্দেহ হয়। পুলিশ সঙ্গে সঙ্গেই প্রবেশ করে সেই বাথরুমে তবে ততক্ষণে জানালা ভেঙে পালিয়েছে রাজু। সেখান থেকেই খবর যায় টালা থানায়। হাসপাতালে এসে পৌঁছায় পুলিশ। শুরু হয় খোঁজা খুঁজি। অনেক খোঁজা খুঁজির পরে অবশেষে টালা থানার পুলিশ সোমবার রাতেই বেলগাছিয়া ব্রিজের ওপর থেকে গ্রেফতার করে আসামি রাজু -কে।