বছর ঘুরে আবার সময় এল ফিরে। এক বছরের অপেক্ষার অবাসান ঘটিয়ে আবার আসছে মা। প্রকৃতিও জানান দিচ্ছে মা আসছে। শরতের নীল মেঘ আর শিউলির গন্ধ যেন তারই আগমণ বার্তা দিচ্ছে। সেই সঙ্গে শুরু হয়ে গিয়েছে তার প্রস্তুতিও। ওলিতে-গোলিতে শুরু হয়ে গিয়েছে প্যান্ডাল। কুমার টুলিতে প্রতিমা তৈরির কাজও প্রায় শেষ। আর সেই সঙ্গে থিম পুজোর প্রস্তুতিও এখন তুঙ্গে। সব মিলিয়ে এক সাজো সাজো রব কলকাতা জুড়ে। কাজ শুরু হয়েছে কলকাতার অন্যতম বিখ্যাত সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের পুজোরও। 

আরও পড়ুন- আধুনিকতায় নব রসের উপস্থাপনা এবারের হিন্দুস্তান পার্ক সার্বজনীনে

প্রতি বছরেই সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের পুজোতে থাকে এক নতুন চমক। এবছরও তার অন্যথা হচ্ছে না। আগের বছর সেখানে মায়ের পরনে ছিল সোনার শাড়ি আর মায়ের আগমণ ঘটেছিল রূপোর রথে করে। এবার অবশ্য সেখানে স্বর্ণরূপিনী মা -কে দেখতে পাওয়া যাবে। কারণ এবছর সেখানে থাকছে সোনার প্রতিমা। পঞ্চাশ কেজি সোনা দিয়ে তৈরি হচ্ছে সেখানে প্রতিমা। প্রায় কুড়ি কোটির এই প্রতিমার উচ্চতা হবে সেখানে ১৩ ফুট। চমক এখানেই শেষ নয় সেখানকার মন্ডপ সজ্জাতেও থাকছে বিশেষ চমক। সেখানকার মন্ডপ তৈরি হচ্ছে ইস্কনের আদলে। এছাড়াও থাকছে আরও নানান চমক। আর সেই চমকের জন্য আর কটা মাত্র দিনের অপেক্ষা। 

যাদের জানা নেই কিভাবে যাবেন এই সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারে তাদের চিন্তা করার কিছু নেই। বৌ বাজারের লেবুতলাতে গেলেই দেখতে পাবেন সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের এই আকর্ষনীয় প্যান্ডাল সহ সোনার প্রতিমা।