দক্ষিণ কলকাতার গড়িয়াহাট অঞ্চলের অন্যতম আকর্ষণ হিন্দুস্তান পার্ক সর্বজনীন দুর্গা পুজো। ঐতিহ্য এবং আধুনিকতার মেলবন্ধনের এক অসামান্য নজির জনমানসে গড়ে উঠেছে এই সর্বজনীন পূজাকে কেন্দ্র করে। ২০১৮ র বিষয় যেখানে ছিল ‘আবর্ত’, তার পরিপূরক রূপে এবারের বিষয় ‘রস’। এই রস রসগোল্লার নয়, এ আমাদের মানুষের মধ্যেকার নব রস। সাহিত্য থেকে সংগীত, এমনকি ভারতীয় থেকে গ্রিক পুরাণেও এই আদি এবং একান্ত ভাবেই মৌলিক রসের উল্লেখ সর্বত্র দেখতে পাওয়া যায়। আগের বারের মতই এবারেও এই ভাবনা চিন্তার পেছনে যিনি আছেন, সেই শিল্পী অনির্বাণ দাস এক নতুন রূপে ‘নব রস’ তাঁর শিল্পকলার মাধ্যমে তুলে ধরছেন। প্যান্ডেলের ভেরতে নব রসের চিত্র যেমন থাকবে, সে ভাবেই শোলা এবং থার্মকলের তৈরি মূর্তিও জনসাধারণকে আকৃষ্ট করবে। সঙ্গে করে নবরসের সমন্বয়ে যে জটিল রসের সৃষ্টি হয়, তাও উপস্থাপন করা হবে চিত্রকলা এবং মূর্তির মধ্যে দিয়ে। 

আরও পড়ুন- নাম লেখাননি এখনও, দেরি না করে অংশ নিন এশিয়ানেট নিউজ শারদ সম্মান ২০১৯-এ
প্যান্ডেলের ভেতরের সজ্জা থেকে বাহিরের সাজ, এক অন্য মাত্রা এনে দেবে বলেই মনে করেন হিন্দুস্তান পার্ক সর্বজনীন পূজা কমিটির সদস্য সৃজিত দাস।  উনি আমাদের জানান যে শুধু মাত্র বিষয়কে উপস্থাপনা করে মানুষের মন জয়  করাই নয়, সাথে করে প্যান্ডেলের ভেতরে যে গেট, সেখানে মাটির কল্কে ব্যবহারের মাধ্যমে ওনারা উপার্জনের দিক থেকে বাংলার পিছিয়ে পড়া মৃৎ শিল্পীদেরও উৎসাহিত করছেন।
নব রসের আদিমতা এবং আধুনিকতাকে যে ভাবে হিন্দুস্তান পার্ক সর্বজনীন তুলে ধরছে, তা এবারের কলকাতার দুর্গা পূজাতে যে অন্যতম মুখ্য আকর্ষণ হতে চলেছে, তা বলাই বাহুল্য। সৃজিত দাস আমাদের আরো জানান যে, ওনাদের চেষ্টা থাকবে তৃতীয়া থেকেই যেন জনসাধারন এই পূজা দেখতে পারেন। প্রশাসনের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি জানান, “যে ভাবে কলকাতা পুলিশ পুজোর দিনগুলোতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে সুষ্ঠ ভাবে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রনের মাধ্যমে আমাদের সাহায্য করেন, তা এক কথায় প্রশংসনীয়।“ সঙ্গে কমিটির পক্ষ থেকেও থাকবে স্বেচ্ছাসেবক, যাতে জনসাধারনের কোন প্রকার অসুবিধে না হয় দর্শনের সময় সে বিষয়ে বিশেষ ভাবে নজর দেওয়া হবে বলেও তিনি জানান। 

আরও পড়ুন- স্বর্ণরূপিনী মা, সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারের নতুন চমক
কিভাবে যাবেন-
উত্তর কলকাতা এবং গড়িয়ার দিক থেকে যারা আসবেন , তারা মেট্রো করে কালী ঘাট মেট্রো স্টেশনে নেমে গড়িয়া হাটের অটো ধরে পৌঁছে যেতে পারবেন।
ট্রেনে করে যারা আসবেন দক্ষিণ ২৪ পরগণা থেকে তারা নিউ গড়িয়া স্টেশনে নেমে মেট্রো করে আগের মতই কালী ঘাট মেট্রো স্টেশনে নেমে গড়িয়া হাটের অটো ধরে পৌঁছে যেতে পারবেন।
হিন্দুস্তান পার্ক সার্বজনীন পূজা দেখার সঙ্গে আপনারা দেখতে পারবেন –
১। সিংহী পার্ক সর্বজনীন
২। একডালিয়া এভারগ্রীন 
৩। বালিগঞ্জ কালচারাল অ্যাসোসিয়েশান
৪। ত্রিধারা সন্মিলনী
৫। দেশপ্রিয় পার্ক সর্বজনীন