চাঁদে বাড়ি বানানোর নকশা তৈরী করে আন্তর্জাতিক সম্মান জিতলেন বাংলার তিনজন শিক্ষার্থী। সারা পৃথিবীর দুলাখ প্রতিযোগীর মধ্য়ে পঞ্চম স্থান অধিকার করল সোহম মুখোপাধ্যায়, ঋষিতা ভৌমিক এবং জিষ্ণা চক্রবর্তী। 

আরও পড়ুন, আজ মরশুমের শীতলতম দিন , পারদ নামল ১৬ এর নিচে শহর কলকাতায়

 ইউরোপিয়ান আর্কিটেক্ট অ্যান্ড ডিজাইন সংস্থা বিশ্বব্যাপী মুন সেপশন শীর্ষক একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। যার মূল বিষয় ছিল,  চাঁদে কী ধরনের বাড়ি বানানো হবে, তার নকশা তৈরি । সেই প্রতিযোগিতায় অংশ নেন আসানসোলের কুলটির বাসিন্দা স্নাতকস্তরের আর্কিটেকচারের তৃতীয় বর্ষের পড়ুয়া সোহম মুখোপাধ্যায়, কলকাতার ঋষিতা ভৌমিক এবং জিষ্ণা চক্রবর্তী। ইতিমধ্য়েই ইউরোপের ভলিউম জিরো অ্যান ইন্টারন্যাশনাল ডিজাইন ম্যাগাজিন আয়োজিত 'মুন সেপশন' প্রতিযোগিতায় এই পড়ুয়াদের তৈরি নকশা প্রকাশিত হয়েছে। তাদের শংসাপত্র দিয়ে সম্মানিত করা হয়েছে।

আরও পড়ুন, ডাবল সেঞ্চুরির পথে পেঁয়াজ, কলকাতার পাঁচটি বাজারে বন্ধ হতে পারে বিক্রি

সেই নকশায় দেখানো হয়েছে,  চাঁদের পাড়াতে দুই বা তিন বেডরুমের বাড়ি সঙ্গে একটি ভার্টিক্যাল বাগানও থাকবে। আর সেই বাগানে অ্যাজোলা নামের শ্যাওলা থাকবে । যা থেকে তৈরী প্রচুর পরিমাণে অক্সিজেন চাঁদে ওই বাড়িতে মিলবে। চাঁদের যে অংশে বরফের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে, সেখানে দশজন পর্যটক এবং পাঁচজন বিজ্ঞানী থাকার মতো বাড়ি তৈরি করা হবে।