বড়দিনের উৎসবে গা ভাসাতে প্রস্তুতি চলছে পুরোদমে। সেজে উঠছে শহর কলকাতা। ইতিমধ্যেই পার্কস্ট্রিট ও নিউমার্কেট সেজেছে নয়া লুকে। বড়দিন উপলক্ষ্যে সেজে উঠছে কলকাতার চার্চও। যিশুর জন্মদিন উপলক্ষ্যে ভক্তরা ২৫ তারিখে ভিড় জমায় বিভিন্ন চার্চে।

এমনই পাঁচ জনপ্রিয় চার্চের হদিশ রইল-
১) সেন্ট পলস ক্যাথিড্রাল চার্চঃ শহর কলকাতার সর্বাধিক বৃহত্তম চার্চ এটি। বড়দিন থেকে বর্ষবরণ এখানে ভক্তদের উপচে পড়া ভিড় নজরে পড়ে। এই চার্চটি স্থাপন করা হয় ১৮৪৭ সালে। ক্যাথিড্রাল রোডের ওপর অবস্থিত এই চার্চটি খোলা থাকে সকাল ১০টা থেকে সন্ধে ৬টা পর্যন্ত। 

২) খ্রীষ্ট দ্য কিং চার্চঃ শহর কলকাতার বুকে আরও এক অনবদ্য চার্চ এটি। বহুদিন ধরে কলকাতার চরাই উতরাই দেখে এই চার্চটি। বড়দিন উপলক্ষ্যে এখানেও ভক্তরা প্রার্থনা করতে উপস্থিত হন, এটি সইয়দ আমির আলি এভিনিউতে রয়েছে। খোলা থাকে ভোর ৬ টা ১৫ মিনিট থেকে সন্ধে ৬টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত। 

৩) আর্মেনিয়ান চার্চঃ এই চার্চটি প্রতিষ্টিত হয়েছিল ১৭২৫ সালে। এটি কলকাতার সব থেকে পুরোনো চার্চ। এই চার্চে পুরোনো দিনের অনেক পেইন্টিং সংরক্ষণ করা রয়েছে। এই চার্চটিও সেজে ওঠে বড়দিন উপলক্ষ্যে। এটি আর্মেনিয়ান স্ট্রিটে অবস্থিত। খোলা থাকে সকাল ৯ টা থেকে ৪টে পর্যন্ত। 

৪) সেন্ট থমাস চার্চঃ এই চার্চটি রোম্যান ক্যাথসিক চার্চ। এখানে কলোনিয়াল আকৃতির বানানো হয়েছে। কলকাতার অন্যতম চার্চের মধ্যে এটি একটি। এখানেই মাদার টেরেজাকা ১৯৯৭ সালে মৃত্যুর পর রাখা হয়েছিল। এই চার্চটিও সেজে ওঠে অনবদ্য লুকে। পার্কস্ট্রিটে অবস্থিত এই চার্চটি খোলা থাকে সকাল ৭ টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। 

৫) সেন্ট অ্যান্ড্রেউ চার্চঃ কলকাতার এটি একটি জনপ্রিয় চার্চ। ১৮১৮ সালে এই চার্চটি তৈরি করা হয়। ব্রাবন রোডে অবস্থিত এই চার্চটি খোলা থাকে ১০ টা থেকে দুপুর ২ টো পর্যন্ত।