রবিবার দুই চিকিৎসকের শরীরে ধরা পড়েছিল করোনা ভাইরাস। মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্য়েই রাজ্য়ের মেডিক্য়াল কলেজ হাসপাতালে পাওয়া গেল আরও দুই করোনা পজিটিভ রোগী। এদের মধ্য়ে একজন প্রসূতি ও অন্যজন কলকাতা মেডিক্যালেরই স্বাস্থ্যকর্মী। তবে সরকারিভাবে এই দুই করোনা পজিটিভের নাম এখনও ঘোষণা করেনি রাজ্য় সরকার। 

রাজ্য়ে নিজামুদ্দিন ফেরতদের সংস্পর্শে এসেছিলেন টলিউড অভিনেত্র্রীর বাবা!

জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যে ওই প্রসূতির কাছাকাছি এসেছিলেন ৫০ জন চিকিৎসক, নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মী।  জানা গিয়েছে, ৫০ জনেরও রক্তের পরীক্ষা করা হবে। এমনকী প্রসূতির সদ্যোজাতেরও নমুনাও পরীক্ষা করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। সূত্রের খবর, সন্তান জন্ম দেওয়ার পরই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে আক্রান্ত হন মা। প্রসববের পরই জ্বর আসে ওই মহিলার। শরীরে করোনার উপসর্গ দেখে দ্রুত তার নমুনা করোনা পরীক্ষার জন্য় পাঠানো হয়। পরে যা করোনা পজিটিভ বলে  জানা যায়।

করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে টলিউডের অভিনেত্রী সাংসদের বাবা.

বেগতিক দেখে ওই মহিলাকে ওয়ার্ডেরই আলাদা জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়। ইতিমধ্য়েই ওই ওয়ার্ডে ভর্তি ১২ জন প্রসূতিরও নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে। আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে প্রসূতি ভর্তি। ঘটনার পরই কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল জুড়ে তীব্র আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। 

এদিকে গতকালই রাজ্য়ে ফের করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন দুই  চিকিৎসক। হাসপাতাল সূত্রে খবর, এদের মধ্য়ে একজন হাওড়া জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক। অন্যজন দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকের কাজ করেন। জানা গিয়েছে, ইনিও জরুরি বিভাগের দায়িত্বে থাকেন।

মুর্শিদাবাদের মসজিদে মানা হয়নি লকডাউন, রাজ্য়কে ফের কড়া চিঠি কেন্দ্রের.

হাসপাতাল সূত্রে খবর, হাওড়া জেলা হাসপতালের চিকিৎসককে ভর্তি করা হয়েছে এম আর বাঙুর হাসপাতালে। অন্য়দিকে, দক্ষিণ কলকাতার চিকিৎসককে নিয়ে  যাওয়া হয়েছে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে। কদিন আগেই করোনায় আক্রান্ত  হয়েছেন হাওড়া জেলা হাসপাতালেরই সুপার। অনুমান, সুপারের সঙ্গে করোনা নিয়ে একাধিক বৈঠক করেছেন ওই চিকিৎসক। সেকারণে সুপারের থেকেই করোনা পজিটিভ ওনার দেহে সংক্রমিত হয়ে থাকতে পারে।