২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে ফের রাজ্য়েকে লকডাউন নিয়ে কড়া চিঠি কেন্দ্রের। রবিবার নবান্নে চিঠি পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। লকডাউনে মুর্শিদাবাদের মসজিদে জমায়েতের উল্লেখ করা হয়েছে দ্বিতীয় চিঠিতে। পাশাপাশি লকডাউনে শিলিগুড়িতে সাধারণ পণ্য়ের বাজার খোলা থাকার বিষয়টিও তুলে ধরা হয়েছে কেন্দ্রের চিঠিতে। যার জেরে লকডাউন না মানার অভিযোগে ফের একবার অস্বস্তিতে রাজ্য় সরকার।

করোনায় রাজ্য়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭, জানাল খোদ স্বাস্থ্য় দফতর.

সম্প্রতি , মুর্শিদাবাদ জেলার বড়ঞা থানার গোপিপুরের এক মসজিদে শুক্রবারের নমাজ পড়ার ভিড় জমে যায়। যেখানে দেখা যায়, সোশ্য়াল ডিস্ট্য়ান্সিং না মেনে বেমালুম মসজিদে ভিড় জমিয়েছে একদল লোক। যাদের মুখে মাস্ক  তো দূর, রুমালও রূমালও ছিল না। এই খবর জানতে পেড়েই এলকায় ছুটে আসেন কান্দির এসডিপিও কুমার সানি। পুলিশ বাহিনী দ্রুত ইমামকে লকডাউনে জমায়েতের বিষয়ে হুঁশিয়ার করেন তিনি। ভবিষ্য়তে লকডাউনে এই ধরনের জমায়েত হলে কঠোর ব্যাবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়ে দেয় পুলিশ। এরপরই গ্রামবাসীরদের করোনা চলাকালীন বাড়িতে নমাজ আদায়ের কথা বলেন ইমাম। 

রাজ্য়ে আরও এক করোনা পজিটিভের মৃত্যু, এবার মৃত হাওড়া হাসপাতালের সাফাইকর্মী

শনিবারই লকডাউন নিয়ে কেন্দ্রের তোপের মুখে পড়ে রাজ্য সরকার। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফ থেকে চিঠি পাঠিয়ে কড়া ভাষায় রাজ্যের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। জায়গার নাম উল্লেখ করে বলে দেওয়া হয়েছে কোথায় লকডাউন মানা হয়নি রাজ্য়ে। কলকাতার রাজাবাজার, তপসিয়া, মেটিয়াবুরুজ, নারকেলডাঙা, গার্ডেনরিচ, ইকবালপুর এই প্রতিটি জায়গায় লকডাউন মানা হয়নি বলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে রাজ্যের পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র এবং মুখ্য সচিব রাজীব সিনহার কাছে।

মাস্ক নেই, রাস্তায় কী পরলে ধরবে না পুলিশ

একইসঙ্গে বলা হয়েছে, বিনামূল্যের রেশন ব্যবস্থাও ঠিকমতো চলছে না। রাজনৈতিক নেতারা রেশনের জিনিস নিয়ে বিলি করছেন। ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান নির্দ্বিধায় পালিত হচ্ছে। পুলিশ গুরুত্ব বিবেচনা করে কোনও রকমের ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এ বিষয়ে করা ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। অবিলম্বে চিঠির  প্রেক্ষিতে রাজ্য় কীকী ব্য়বস্থা নিয়েছে তা উল্লেখ করতে বলা হয়েছে জবাবি চিঠিতে।

কেন্দ্রের এই চিঠি নিয়ে ইতিমধ্য়েই মুখ খুলেছে কেন্দ্রীয় বন ও পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। টুইটারে বাবুল লিখেছেন, 'এই নিয়ে অনেকদিন ধরেই প্রশ্ন তুলছিলাম। গতকালও বলেছি ফুল, মিষ্টি ইত্যাদির ওপর থেকে লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে কি বোঝাতে চাইছেন দিদি?উনি কি বলতে চাইছেন যে ওনার নেতৃত্বে বাংলা করোনা-কে হারিয়ে দিয়েছে?আর ভয়ের কিচ্ছু নেই? আসলে ডিসাস্টার ম্যানেজমেন্ট অ্যাক্ট-এর অবমাননা করছেন উনি। এটাই সত্যি!'