বর্ষবরণের রাতে গোটা কলকাতা জুড়ে ছিল উৎসবের মেজাজ।  কিন্তু বর্ষবরণের রাতেই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মারা গেলেন দু ‌জন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় যুবককে নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেম হাসপাতালে। তারপর সেখানেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। 

আরও পড়ুন, কাকভোর থেকে ভিড় দক্ষিণেশ্বরে, কল্পতরু উপলক্ষ্যে অতিরিক্ত দুই ট্রেন


বড়দিন থেকেই কলকাতা প্রস্তুত নিচ্ছিল নতুন বছরকে স্বাগত জানানোর জন্য। এদিকে বর্ষবরণের রাতে কলকাতায় জোড়া দুর্ঘটনায় মারা গেলেন দুজন। জানা গিয়েছে, জখম অন্তত তিন। মঙ্গলবার রাত এগারোটা নাগাদ হেস্টিংস থানার অন্তর্গত দ্বিতীয় হুগলি সেতুতে প্রথম দুর্ঘটনাটি ঘটে। বেপরোয়া গতিতে আসা একটি ট্রাক ধাক্কা মারে একটি গাড়িকে। গাড়িটির পিছনেই ছিল একটি বাইক। ট্রাকের ধাক্কায়, ডোমজুড়ের যুবক ২২ বছরের বাইক আরোহী গুরুতর জখম হন। স্থানীয়রা এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডোমজুড়ের যুবককে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। জখম হন গাড়িতে থাকা তিনজন। দুর্ঘটনার পর পালিয়ে যায় ট্রাক চালক। ঘাতক লরিটিকে ধরার চেষ্টা করছে পুলিশ। এদিকে বড়তলায় বেপরোয়া ট্রাকের ধাক্কায় মারা যান এক পথচারী। 

আরও পড়ুন, জাঁকিয়ে শীতেই বর্ষবরণ, রাত পোহালেই বৃষ্টির সম্ভাবনা

সারা বছরই , রাজ্য সরকারের এত প্রচার 'সেভ লাইফ সেভ ড্রাইভ' এর জন্য মানুষ যে এখন সচেতনতার অভাব। তার অন্য়তম প্রমাণ হল এই মৃত্যু। গতকাল মঙ্গলবার রাতে, বছরের শেষ দিন। তার উপর রাত বাড়ার পর রাস্তাঘাট কম বেশি ফাঁকাই ছিল। সবাই একসঙ্গে উৎসবে মেতে ছিল। আর সেই জন্য় রাস্তায় বেপয়োরা গাড়ির সংখ্য়াও ছিল বেশী। এই কারণেই আগে থেকে পুলিশ প্রশাসন সর্তকতা এবং কিছু নিয়ম মেনে চলতে বলেছিল বারবার। তারপরেও নিষেধের তোয়াক্কা না করে প্রাণ হারাতে হল, দেখা হল না আর নতুন বছর।