ছয় বছর পরে ফিরল আতঙ্ক। ২০১৩ সালের ৩ মার্চ ভেঙে পড়েছিল উল্টোডাঙা ব্রিজের একটা অংশ। এবারও ফাটল ঠিক সেই অংশেই। তার জেরেই অর্ধ দশক পরে সেই ভয়াবহ স্মৃতি আরও একবার ফিরে এল। কেএমডিএ-র নাইট  ইনসপেকশান টিমের নেতৃত্বে এদিন ব্রিজ পরিদর্শনে এসে একদল ইঞ্জিনিয়র এই ফাটল দেখতে পান। ফাটলটি ছিল বিমানবন্দর-সল্টলেক উড়ালপুলের সেই পুরনো স্তম্ভটিতেই। বলা চলে তাদের তৎপরতাতেই এদিন বিরাট কোনও দুর্ঘটনা আটকানো সম্ভব হল। এদিন বিপদ বুঝেই এই পরিদর্শক কমিটি কলকাতা পুলিশ ও বিধাননগর কমিশনারেটকে সতর্ক করে। সঙ্গে সঙ্গেই শুরু হয় অ্যাকশান। ব্রিজের ওপর সবরকম গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। গার্ডরেল লাগিয়ে দেয় ব্রিজের মুখে।সূত্রে খবর‌, আগামী তিন দিন এই ব্রিজ বন্ধ থাকবে। কাল পরিদর্শনে যাবেন কেএমডিএ ইঞ্জিনিয়ররা। যাবেন নির্মাণকারী সংস্থার প্রতিনিধিরাও‌। তাদের কাছ থেকে জবাবদিহিও চাওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ উল্টোডাঙা ফ্লাইওভারে বিপজ্জনক ফাটল, যানজটে স্তব্ধ ইএম বাইপাস

এই মুহুর্তে গোটা ঘটনায় বিপুল জানযট তৈরি হয়েছে বিধাননগর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায়। সমস্ত গাড়িই এখন হাটকো মোড় থেকেই ঘুরে যাচ্ছে। লেকটাউন যেতে হচ্ছে পুরনো ব্রিজের হয়ে।পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানান, এই নিয়ে অযথা ভয় পাওয়া দরকার নেই। প্রয়োজন হলে প্রপ দিয়ে দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে দুই দিক খুলে দেওয়া হবে। এয়ারপোর্টগামী গাড়িগুলিকে চিংড়িঘাটা ফ্লাইওভার ধরার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। কলকাতা পুলিশের কাছে এই মুহুর্তে বড় চ্য়ালেঞ্জ আগামী কয়েকদিন ট্রাফিক কন্ট্রোল করা।