Asianet News Bangla

কোভিশিল্ড-কোভ্যাকসিন নয়, কসবাকাণ্ডে দেওয়া হয়েছিল কি ভ্যাকসিন, আতঙ্কে কাঁটা মানুষ

  •  ক্যাম্পে দেওয়াই হয়নি কোভিশিল্ড বা কোভ্য়াক্সিন 
  • করোনা ভ্যাকসিনের বদলে কোনও মিক্সড ভ্যাকসিন
  • অর্থাৎ পাউডারে জল মিশিয়ে চলছিল ভ্যাকসিনেশন 
  •  ভ্যাকসিন কেলেঙ্কারির পর আতঙ্কে আমজনতা 
Vials recovered from Debanjan Devs office all fake in Kasba RTB
Author
Kolkata, First Published Jun 25, 2021, 12:53 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp


 ভ্যাকসিন কেলেঙ্কারির পর আতঙ্কে আমজনতা। কসবাকাণ্ডের পর বেরিয়ে এল একাধিক চাঞ্চলকর তথ্য। তদন্তে নেমে টিকার ভায়াল সংগ্রহ করে তা ড্রাগ কন্ট্রোলে পরীক্ষা করতে পাঠিয়েছিল পুলিশ। কলকাতা পুরসভার দাবি, কসবার ভুয়ো ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পে দেওয়াই হয়নি কোভিশিল্ড বা কোভ্য়াক্সিন। 

আরও পড়ুন, কোভিডে ফের মৃত্যু বাড়ল রাজ্যে, আশঙ্কা বাড়াচ্ছে ডেল্টা প্লাস 


প্রসঙ্গত,  চিন্তা বাড়াচ্ছে, কসবার বেআইনি ওই ভ্যাকসিনেশন ক্য়াম্প। ইতিমধ্যেই ওই ভ্য়াকসিন অভিনেত্রী সাংসদ মিমি চক্রবর্তী সহ আরও অনেক মানুষের শরীরে। আদৌ কি টিকা ছিল নাকি অন্যকিছু, এখানেই রহস্য ঘনীভূত হচ্ছে। তদন্তে নেমে টিকার ভায়াল সংগ্রহ করে তা ড্রাগ কন্ট্রোলে পরীক্ষা করতে পাঠিয়েছে পুলিশ। কলকাতা পুরসভার দাবি, কসবার ভুয়ো ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পে দেওয়াই হয়নি কোভিশিল্ড বা কোভ্য়াক্সিন। এবিষয়ে নিয়ে ডেপুটি সিএমওএইচ জানিয়েছেন, সাধারণত কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের ভায়ালে ব্যাচ নম্বর,  এক্সপেয়ারি ডেট, ম্যানুফ্যাকচারিং ডেট লেখা থাকে। কিন্তু দেবাঞ্জনের অফিস থেকে উদ্ধার হওয়া টিকাগুলির মধ্যে কিছু ভায়ালে ব্যাচ নম্বর, ম্যানুফ্যাকচারিং এবং এক্সপেয়ারি ডেট মেলেনি। শিশির আয়তনও তুলনামুলকভাবে ছোট। লেখা ছিল না কোম্পানির নম্বরও।
আরও পড়ুন, 'গঙ্গায় দেহ ফেলে কোভিড রেকর্ড মুছে দেয় ওরা', BJPকে নিশানা মমতার 

কোভিডের ভ্যাকসিনের মতো দেখতে এই ভায়ালে ভ্য়াকসিনেশন চললেও এই ভ্যাকসিন করোনার নয় বলেই দাবি বিশেষজ্ঞদের। করোনার নামে সম্ভবত হাম কিংবা বিসিজির ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছিল এতদিন। করোনা ভ্যাকসিনের বদলে কোনও মিক্সড ভ্যাকসিন অর্থাৎ পাউডারে জল মিশিয়ে চলছিল ভ্যাকসিনেশন। করোনার এমন কোনও ভ্যাকসিন নেই বলেই জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। প্রাথমিক তদন্তে এমনটাই জানিয়েছেন পুরসভার স্বাস্থ্য কর্তারা। পাশাপাশি, কসবার ওই ভুয়ো ভ্যাকসিন কেলেঙ্কারির প্রধান অভিযুক্ত দেবাঞ্জন দেবের সঙ্গে শাসকদলের সম্পর্ক বেশ পুরোনো। তদন্ত করুক রাজ্য সরকার। এমনটাই দাবি জানিয়েছেন বাঁকুড়ার বিজেপি সাংসদ সুভাষ সরকার। পুলিশি সূত্রে খবর, কসবাকাণ্ডে দেবাঞ্জনকে জেরা করে একাধিক তথ্য উঠে এসেছে। দেবাঞ্জন দেব এমএসসি করেছে জেনেটিক্সে। এরপর কি করে এমনভাবে অপরাধ জগতের সঙ্গে যুক্ত হল, খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। ইতিমধ্যেই তাঁর বিরুদ্ধে নিউমার্কেট থানায় এফআইআর করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন, 'ভ্যাকসিন নিয়ে সিন্ডিকেট চলছে-জড়িত সবাই', কসবাকাণ্ডে তৃণমূলকে নিশানা দিলীপের 


উল্লেখ্য, গবেষকরা জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের ভারতীয় প্রজাতি ডেলটা ভ্যারিয়েন্ট-ই ভারতে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার বড় কারণ। এটা ডেলটা ভ্যারিয়েন্ট অর্থাৎ বি.১.৬১৭.২ স্ট্রেনটি অত্যন্ত সংক্রামক। ন্যাশনাল ডিজিজ কন্ট্রোল এবং ইন্ডিয়ান এসএআরএস সিওভিটু জিনোমিক কনসরটিয়ার একটি সমীক্ষায় জানা গিয়েছে। এই মুহূর্তে দিল্লি, অন্ধ্রপ্রদেশ, গুজরাট, মহারাষ্ট্র সহ একাধিক রাজ্যেই ডেলটা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়েছে। এহেন আশঙ্কাজনক পরিস্থিতিতে  ভ্যাকসিন কেলেঙ্কারি ইস্যু প্রকাশ্য়ে আসায় কার্যত দিশেহারা মানুষ।

 

 

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

আরও পড়ুন, রাজ্য়ের সর্বনিম্ন সংক্রমণ এই জেলায়, বৃষ্টিতে হারাতেই পারেন পুরুলিয়ার পাহাড়ে 

আরও দেখুন, বৃষ্টিতে বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা 

আরও পড়ুন, বনগাঁ লোকাল নয়, জাপানে ঠেলা মেরে ট্রেনে তোলে প্রোফেশনাল পুশার, রইল পৃথিবীর আজব কাজের হদিস 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios