কালঘাম ছুটছে কলকাতার। বর্ষার মরশুম তবু বৃষ্টির দেখা নেই। তবে এবার ভোগান্তি মেটার ইঙ্গিত দিল হাওয়া অফিস।

হাওয়া অফিস সূত্রের খবর, কলকাতা-সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা আগামী ৩০ তারিখ। সৌজন্যে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপ। যদিও তার আগে ভারীবৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে না। বরং বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকায় আর্দ্রতাজনিত বৃষ্টি হতে পারে। আবহাওয়া দফতর সূত্রে আরও খবর, স্থানীয় ভাবে বর্জ্রগর্ভ মেঘ সঞ্চার হওয়ার কারণে আগামী কাল বৃষ্টি হতে পারে দক্ষিণ বঙ্গের কয়েকটি জায়গায়।  সে এসেছিল। কিন্তু দু দণ্ড না দাঁড়িয়েই সে পালিয়েছে। হ্যঁ ছিঁটেফোঁটা বৃষ্টিতে জ্বালা জুড়োতে না জুড়োতেই ফের কালঘাম ছোটার জোগাড় শহরবাসীর। বৃ্ষ্টি শহর ছেড়ে উত্তরমুখী হয়েছে আর হাসছে উত্তরবঙ্গ।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে আগেই জানানো হয়েছিল, ২৫ জুন থেকে ২৮ জুন পর্যন্ত উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টি হবে।  এদিন বিকেল নাগাদ উত্তরবঙ্গের আনাচকানাচে বৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টি চলছে দার্জিলিং-শিলিগুড়িতেও।

হাওয়া অফিস সূত্রে জানানো হচ্ছে, উপরের ৫ জেলা তথা দার্জিলিং,জলপাইগুড়ি,কলিম্পং,কোচবিহার,
আলিপুরদুয়ারে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভবনা। ন্যূনতম ৭ সেমি. ও সর্বাধিক ২০ সেমি. বৃষ্টিপাত হবে।  এই বর্ষণের কারণ হিসেবে আবহাওয়া দফতর থেকে জানানো হচ্ছে, বঙ্গোপসাগর থেকে প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকেছে উত্তরবঙ্গে ও একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা রয়েছে উত্তরবঙ্গের উপরে।

এদিন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিন বাতাসের  আর্দ্রতার পরিমাণ প্রায় ৭৮ শতাংশের কাছাকাছি।