সোমবার  কলকাতার আকাশ  সারাদিনই মেঘলা থাকবে। কলকাতা সহ রাজ্য়ে আজও বজ্রবিদ্য়ুৎ সহ বৃষ্টি পূর্বাভাস।  এবার উত্তরবঙ্গের উত্তর দিনাজপুর ও মালদার বাকি অংশ এবং দক্ষিণবঙ্গের বীরভূম, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়াতে প্রবেশ করবে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু। এই মুহূর্তে কলকাতার তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩১.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ৯৮ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ৮৩ শতাংশ। অপরদিকে, শনিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৯.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  যা স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি কম। শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বাধিক ছিল ৯৭ শতাংশ। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ন্যূনতম ছিল ৮৭ শতাংশ।  সেই তুলনায় বর্ষা ঢোকার পর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা অনেকটাই নেমে এসেছে। এদিকে সর্বোচ্চ আদ্রতা আরও বেড়ে গিয়েছে। তাই জলীয় বাষ্প বেশি থাকায় আদ্রতা জনিত অস্বস্তি গতকালের মত থাকছেই। 


 উত্তরবঙ্গের উত্তর দিনাজপুর ও মালদার বাকি অংশ এবং দক্ষিণবঙ্গের বীরভূম, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়াতে প্রবেশ করবে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু। দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, নদীয়া, মুর্শিদাবাদ, পূর্ব বর্ধমান, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর ও উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা অতিক্রম করেছে। উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং মালদার কিছু অংশ অতিক্রম করেছে। 


প্রসঙ্গত আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস মতো বর্ষা প্রবেশ করে বাংলায়।  উত্তরবঙ্গের উপরের পাঁচটি জেলা বৃষ্টির পরিমাণ বেশি কয়েকটা জায়গায় ভারী বৃষ্টি  হবে। অপরদিকে,  উত্তরবঙ্গের কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার ,জলপাইগুড়িতে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস। হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে উত্তরবঙ্গের অন্যান্য জেলাতেও। দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে।  বাদবাকি জেলায় হালকা মাঝারি বৃষ্টি হবে। উড়িষ্যা উপকূলে একটি নিম্নচাপ রয়েছে তাই উড়িষ্যা উপকূল লাগোয়া সমুদ্রে হাওয়ার গতি বেশি থাকবে তার জন্য মৎস্যজীবীদের ওখানে যেতে বারণ করা হয়েছে।