শুক্রবার সকাল থেকেই শহর কলকাতায় আকাশের মুখ ভার। কলকাতার আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। তবে এদিন বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে কলকাতা সহ রাজ্য়ে। উল্লেখ্য, আবহাওয়া দফতর আগেই জানিয়েছে, নির্ধারিত সময়ের কিছু আগেই বঙ্গে প্রবেশ করতে পারে বর্ষা।  ঘূর্ণিঝড় যশের পর কলকাতার তাপমাত্রা আচমকা বেড়ে গেলেও গত কয়েকদিনের বৃষ্টিতে সামান্য স্বস্তি ফিরেছে ফের কলকাতায়। 

আরও পড়ুন, আজই ভ্য়াকসিন নিলেন ভাইরাল 'চা-কাকু', এবার করোনা আক্রান্তদের পাশে মৃদুল দেব 

আবহাওয়া দফতর  জানিয়েছে, শুক্রবার বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস  কলকাতা সহ রাজ্য়ে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, কেরলে ঢুকেছে মৌসুমী বায়ু। কেরলের দক্ষিণ অংশে বৃহস্পতিবারই প্রবেশ করেছে মৌসুমী বায়ু। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে বাংলায় খুব দ্রুত বর্ষার আগমন ঘটবে। সম্ভবত জুন মাসের মাঝামাঝি সময়ে গোমড়া হতে পারে বাংলার আকাশের মুখ। ভ্যাপসা গরম কাটাতে পারে মৌসুমী বায়ুর দামাল হাওয়া। সাধারণত কেরলে বর্ষা ঢোকে পয়লা জুন। তাই স্বাভাবিকভাবেই দেশে বর্ষার আগমন ঘটেছে বলে দাবি আবহাওয়াবিদদের। উল্লেখ্য,  যশের হাত ধরেই রাজ্যে ঢুকছে বর্ষার রেশ। দোর গোড়ায় দাঁড়িয়ে প্রহর গুণছে, ঠিক সেই সময়ই নানা ঘূর্ণাবর্ত ও নিম্নচাপ অক্ষরেখার উপস্থিতিতে পাল্টে গিয়েছে রাজ্যের চেনা আবহাওয়া। 

আরও দেখুন, Live Covid-নিম্নমুখী বাংলার করোনাগ্রাফ, একদিনে মৃত্য়ু ১০৮, কমল সংক্রমণও  

সোমবার থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাত হয়, পাশাপাশি কলকাতাতে এদিন তাপমাত্রা এক ধাক্কায় অনেকটাই কমে নেমে আসে।    আবহাওয়া দফতরে খবর অনুযায়ী, শুক্রবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি নীচে।   সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ২৯.০ ডিগ্রী।  স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে। অপরদিকে এদিন শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯২ শতাংশ এবং সর্বনিম্ন ৫৮ শতাংশ বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।আবহাওয়া দফতরে খবর অনুযায়ী,বৃহস্পতিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩.৬ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স। স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি নীচে।   সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ২৮.১ডিগ্রী।  স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি উপরে। অপরদিকে এদিন শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯২ শতাংশ এবং সর্বনিম্ন ৬৮ শতাংশ বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।