১১ নভেম্বর থেকে বাংলায় শুরু হয়েছে প্রথম পর্যায়ের লোকাল ট্রেন পরিষেবা। শহরতলিতে সাধারণ মানুষের জন্য এই পরিষেবা চালু হলেও, তার বাইরে রাজ্য়ের অন্যান্য জায়গায় এখনও লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু হয়নি। এবার নন-সাবার্বান এলাকায় লোকাল ট্রেন চালুর ক্ষেত্রে সায় দিল রাজ্য সরকার।

আরও পড়ুন-সঠিক সময়েই একুশের নির্বাচন, প্রস্তুতিতে 'সশরীরে' বৈঠক বসছেন জেলাশাসকরা

শহরতলির পর রাজ্যের অন্যান্য অংশে ট্রেন পরিষেবা চালুর জন্য রেলকে অনুমতি দিয়েছে রাজ্য সরকার। যদিও, রেল সূত্রে খবর, শুক্রবার রাত পর্যন্ত রাজ্য সরকারের অনুমতিপত্র এখনও রেলের কাছে পৌঁছয়নি। সেই অনুমতিপত্র পেলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে রেলমন্ত্রক। শহরতলিতে লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু হলেও, ব্যান্জেল-কাটোয়া, কাটোয়া-আজিমগঞ্জ, বর্ধমান-আসানসোল এই সব রুটগুলিতে পরিষেবা চালুর জন্য সেসময় ছাড়পত্র দেওয়া হয়নি। কোনা সংক্রমণের আশঙ্কার কথা মাথায় রেখে নন-সাবার্বান লোকাল ট্রেন পরিষেবা ছাড়পত্র দেয়নি রাজ্য সরকার। এবার, কালীপুজো ও ছটপুজোর পর রেলকে সেই ছাড়পত্র দিল রাজ্য সরকার।

আরও পড়ুন-বনদফতর-SSB-র যৌথ অভিযানে সাফল্য়, কোচবিহার থেকে উদ্ধার প্যাঙ্গোলিন

করোনা সুরক্ষা বিধি মেনে রাজ্য় প্রথম পর্যায়ের লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু হয়েছে। কোভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে প্রথম পর্যায়ে পরিষেবা চালুর অনুমতি দিয়েছিল রাজ্য সরকার। সেই অনুযায়ী ১১ নভেম্বর থেকে পরিষেবা চালু হয়েছে। কালীপুজো ও ছটপুজোর পর ধাপে ধাপে পরিষেবার চালুর ক্ষেত্রে সায় দিয়েছিল রাজ্য। সেইমতো দ্বিতীয় পর্যায়ে লোকাল ট্রেন পরিষেবায় সবুজ সঙ্কেত দেওয়া হল রাজ্যের তরফে। যদিও, রেল সূত্রে খবর, প্রথম পর্যায়ে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনে পরিষেবা চালু হওয়ায় দ্বিতীয় পর্যায়ে এই নিয়ম অনুসুরণ করা হবে।