আজ বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে উচ্চমাধ্যমিক।টানা ১৬ দিন ধরে চলবে এই পরীক্ষা। ২৭ মার্চ পরীক্ষা শেষ হবে। প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে বেশ কিছু কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরার নজরদারিতে পরীক্ষা হবে বলে সংসদ থেকে জানানো হয়েছে। বন্ধ রাখা হবে কিছু এলাকার নেট পরিষেবা। পরীক্ষার প্রথম এক ঘন্টায় ওয়াশরুম যাওয়া নিষেধ। কোনওরকম প্রযুক্তির ব্যবহার করা হচ্ছে কিনা সেদিকেও নজরদারি চলবে। পরীক্ষাকেন্দ্রগুলোয় জারি থাকবে ১৪৪ ধারা।

আরও পড়ুন, তৃণমূল এবার রোদ্দুরের পিছনে, শ্রীরামপুর থানায় অভিযোগ দায়ের

 তবে এবার উচ্চমাধ্যমিকে নকল রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিল শিক্ষা দফতর। পরীক্ষা চলাকালীন শিক্ষক-শিক্ষার্থী বাইরে যাওয়া বারণ। পরীক্ষার হলে থাকবেন মোট তিন জন গার্ড। তাদের মধ্য়ে একজন প্রধান হবেন, যাকে আইডি কার্ড দেওয়া হবে। একজন থাকবেন মোবাইল অবজারভার।পরীক্ষার প্রথম এক ঘন্টায় ওয়াশরুম যাওয়া নিষেধ। এমনকি পরীক্ষা চলাকালীন শিক্ষক-শিক্ষার্থী বা অন্য় কোনও হলের কর্মীর বাইরে যাওয়া পুরোপুরি বারণ। উল্লখ্য়ে, গত বছরের তুলনায় এ বার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে ৫ হাজার। পরীক্ষা সুষ্টভাবে সম্পন্ন করতে কর্তৃপক্ষ তৎপর বলে বুধবার উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস জানিয়েছেন, কোনও পরীক্ষার্থী মোবাইল নিয়ে হলে ঢুকলে তাঁর পরীক্ষা বাতিল করা হবে। তিনি আরও জানিয়েছেন, পরীক্ষার্থীদের হলে প্রবেশের আগে প্রয়োজনে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে পরীক্ষা করে দেখা হবে।

আরও পড়ুন, স্টেট ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের জন্য সুখবর, ন্যূনতম টাকা না রাখলেও হচ্ছে না জরিমানা


 উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলের দিনই ঘোষণা করা হয় ২০২০ সালের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার রুটিন জানিয়ে দেয় শিক্ষা সংসদ। টানা ১৬ দিন ধরে চলবে এই পরীক্ষা। ২৭ মার্চ পরীক্ষা শেষ হবে। প্রতিদিনই সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে পরীক্ষা চলবে দুপুর ১.১৫ মিনিট পর্যন্ত। হেলথ কেয়ার, অটোমোবাইল, অর্গানাইজড রিটেইলিং, সিকিউরিটি, আইটি এবং ভোকেশনাল স্টাডিজ, স্বাস্থ্য এবং শরীর বিদ্যা, মিউজিক এবং ভিজুয়াল আর্টের মতো বিষয়ের জন্য পরীক্ষার সময়সীমা ২ ঘণ্টা। 

আরও পড়ুন, পুলিশ ধরার আগেই 'চিরঘুমে' রোদ্দুর, ফেসবুকে ঘুরে বেড়াচ্ছে 'রেস্ট ইন পিস'