রাজ্য়ে কিছু এলাকায় গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কা করছে রাজ্য় সরকার। সেই কারণেই তড়িঘড়ি সপ্তাহে দুদিন লকডাউনের পথে হাঁটল রাজ্য়। এ বিষয়ে রাজ্য়ের স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্য়োপাধ্য়ায় জানিয়েছেন,ডাক্তার ও বিশেষজ্ঞদের অনেকে মনে করছেন বাংলায় কোথাও কোথাও গোষ্ঠী সংক্রমণ তথা কমিউনিটি স্প্রেড শুরু হয়েছে। তাই সেই শৃঙ্খল ভাঙতেই রাজ্য সরকার লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। 

সেমাবার রাজ্য়ের করোনা পরিস্থিতি রুখতে শক্ত হাতে রাশ  ধরলেন স্বরাষ্ট্র সচিব। এবার থেকে সংক্রমণ রোধে প্রতি সপ্তাহে দু’দিন পুরো লকডাউন থাাকবে রাজ্যে। সোমবার নবান্নে এমনই ঘোষণা করল রাজ্য সরকার। স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, নির্দিষ্ট ওই দু’দিন রাজ্যে অফিস খুলবে না। নিয়ম মেনে কোনও পরিবহণও চলবে না। চলতি সপ্তাহে বৃহস্পতিবার ও শনিবার রাজ্যে এই কড়া লকডাউন হবে। পরবর্তী সপ্তাহে বুধবার এই লকডাউন হবে। আলোচনা করে  অন্য আরও একটি দিন পরে ঘোষণা করা হবে।

স্বরাষ্ট্রসচিব জানিয়েছেন,  আমলা, বিশেষজ্ঞদের কমিটি আলোচনা করার পরই  সংক্রমণের শৃঙ্খল ভাঙাটা জরুরি  মনে হয়েছে। তাই নতুন করে লকডাউনের সিদ্ধান্ত। সেকারণে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কন্টেইনমেন্ট জোনে যেমন পুরো লকডাউন চলছে তেমন চলবে। তার সঙ্গে সপ্তাহে দু’দিন সারা রাজ্যেই পুরো লকডাউন সুনিশ্চিত করা হবে।সোমবার বৈঠক করে ফের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। পাশাপাশি তিনি বলেছেন, ‘কোভিড হাসপাতাল ও সেফ হোমের সংখ্যা বেড়েছে। উপসর্গহীন হলে হোম আইসোলেশন ও সেফ হোমে রাখা হবে।’

দেশের সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতি বলছে, উত্তরপ্রদেশে যোগী আদিত্যনাথের সরকারও সপ্তাহে দু’দিন লকডাউন জারি করেছে। একই পথে হেঁটেছে  ওড়িশা।  যদিও এই দুই রাজ্যেই শনি ও রবিবার লকডাউন পালন হচ্ছে। বাংলায় কাজের দিনেই লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।  

একই সঙ্গে স্বরাষ্ট্র সচিব জানিয়েছেন, স্বাস্থ্য় ভবনে ইন্টিগ্রেটেড হেল্পলাইন চালু করা হচ্ছে। ৬০টি ফোনে কথা বলতে পারবেন সাধারণ মানুষ। ১৮০০৩১৩৪৪৪২২২ এবং ০৩৩-২৩৪১২৬০০। টেলিমেডিসিনের হেল্পলাইন ০৩৩-২৩৫৭৬০০১। কলকাতায় অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা ০৩৩-৪০৯০২৯২৯।একই সঙ্গে রাজ্যে করোনার গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়ে গিয়েছে বলে জানালে স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই কারণেই এবার রাজ্যবাসীকে আরও বেশি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে হবে বলে জানালেন তিনি। পরিস্থিতি মোকাবিলায় চলতি সপ্তাহ থেকেই রাজ্যজুড়ে ২ দিন লকডাউনের সিদ্ধান্তের কথা জানালেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।