রাজ্য়ে করোনা আবহে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির পঠন পাঠন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ৩০ জুন থেকে বাড়িয়ে আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত রাজ্য়ের স্কুল-কলেজগুলি বন্ধ রাখা হবে। পরবর্তীকালে আলোচনার মাধ্যমে রাজ্য়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি খোলার দিন ঠিক করা হবে।

এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী বলেন,আমরা আমাদের স্কুলগুলিকে ৩০ জুন থেকে নিয়ে গিয়ে ৩১ জুলাই পর্যন্ত বন্ধ রেখেছি। একই ভাবে ১০ জুন থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত কলেজের পঠন পাঠন ও বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে কলেজের প্রশাসনিক কাজগুলি কলেজ কর্তৃপক্ষের  উপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। মুখ্য়মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেই স্কুল গুলিকে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছে রাজ্য় সরকার। করোনার আবহে লকডাউনের জন্য কয়েকটি পরীক্ষা আটকে যায়। সেগুলি নির্ধারিত সময়ে করার সিদ্ধান্তে এখনও অনড় রয়েছে রাজ্য়। যদিও শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, আগামী দিনে রাজ্য়ের শিক্ষা ক্ষেত্রে সুপ্রিম কোর্ট ও বিভিন্ন বোর্ডের সিদ্ধান্তের ওপর নজর রাখছে রাজ্য় সরকার।  সেই সব বিষয়গুলি বিবেচনা করেই আগামী দিনে রাজ্য়ের শিক্ষাব্যবস্থার গতি প্রকৃতি ঠিক হবে। 

এই বলেই অবশ্য থেমে থাকেননি শিক্ষামন্ত্রী। শিক্ষা প্রসঙ্গ বাদে রাজ্যের বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ নিয়েও সরব হন তৃণমূলের মহাসচিব। পার্থবাবু বলেন,  দিলীপ ঘোষ যদি হিংসা রাজনীতি করতে চায় তাহলে আমরা আর কী বলবো। তবে ওনার বোঝা উচিত, বাংলা হিংসার রাজনীতি করে না- গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে।