ফের কলকাতা বিমান বন্দরে সোনা পাচারকারীর পর্দা ফাস। কলকাতা বিমানবন্দরে এক মহিলা সোনা পাচার করতে গিয়ে পুলিশের জালে ধরা পড়লেন। সূত্রের খবর, ধৃত মহিলা তার দেহের ভিতরে তিনি সোনা  লুকিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু শেষ অবধি বিমানবন্দরে মোতায়েন করা সিআইএসএফ কর্মকর্তাদের কাছে ধরা পড়ে যান তিনি। গ্রেফতার করা হয় পারভীন সুলতানা নামের ওই মহিলাকে । 

আরও পড়ুন, ধাক্কা দেওয়ায় বেধড়ক মার, ছদিন পরে এসএসকেম-এ মৃত্যু সাইকেল আরোহীর

সূত্রের খবর, গত বৃহস্পতিবার পারভীন সুলতানা আবদুল রশীদ নামের ওই মহিলা ব্যাঙ্কক থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে এসেছিলেন। তারপর যখন তিনি  চেকিংয়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছিলেন তখনই সন্দেহ হয় বিমান বন্দরে কর্তব্য়রত অফিসারদের।  চেকিং চলাকালীন উপ-পরিদর্শক রশ্মী গুরুং, পারভীনের শরীরে একটি ধাতব উপস্থিতি লক্ষ্য করেন ওই অফিসাররা। ধৃত ওই মহিলা প্রায় ৫০০ গ্রাম সোনা নিয়ে ব্যাঙ্কক থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে এসেছিলেন। 

আরও পড়ুন, শিক্ষকের মারে আহত ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র, আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি ইএসআই হাসপাতালে

সাব-ইন্সপেক্টরের সন্দেহ হতেই পারভীনকে তদন্তের জন্য পাঠানো হয়।  তারপরেই হয়, সোনা পাচারের পর্দা ফাঁস। আধিকারিকরা, পারভীনের দেহের গহ্বরের ভিতরে একটি স্বচ্ছ প্লাস্টিকের প্যাকেট পান। যার মধ্য়ে প্রায ৫০০ গ্রাম সোনা  ছিল। ইতিমধ্য়েই পারভীনকে গ্রেফতার করে দফায় দফায় জেরা চালাচ্ছে পুলিশ। উল্লেখ্য় এর আগেও বহুবার এই সোনা পাচারের ঘটনা ঘটেছে। প্রত্য়েকবারই অভিনব উপায়ে সোনা পাচার করেছিলেন অপরাধীরা। এর আগে, শিয়ালদায় স্টেশনে, এক ব্য়ক্তির অ্য়াঙ্কলেটের ভিতর থেকে ১ কেজি সোনার বার উদ্ধার হয়েছে। এছাড়া কলকাতা বিমান বন্দরে, মুম্বই থেকে আগত  এক দম্পতির বেল্টের বাকলস্ থেকে বেরিয়ে এসেছিল সোনার বার। সেবারও পর্দা ফাঁস করে সিআইএসএফ।