আধারই আপনার নাগরিকত্বের পরিচয়। প্রতিটা ক্ষেত্রেই বাধ্যতামূলক করা হয়েছে আধার কার্ড। যত দিন যাচ্ছে আধার কার্ডের গুরুত্ব বাড়ছে। ভারতকে ডিডিটাল করার লক্ষ নিয়ে এক বড় পদক্ষেপ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। স্মার্ট করার তাগিদে সব কিছুই এখন স্মার্ট। আধার কার্ড থেকে রেশন কার্ড সবকিছুই এখন স্মার্ট। আধার কার্ড নিয়ে বেশ কিছু সমস্যায় পড়তে হয়েছে সাধারণ মানুষকে। আধার ও প্যান লিঙ্ক করার সময়সীমা বেশ কিছুটা সময় বাড়ানো হয়েছিল। এই মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত সেই সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। এই মাসের মধ্যেই আধার ও প্যান কার্ড লিঙ্ক করাতেই হবে। এই নিয়ে সাত বার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে।

আৎও পড়ুন-হানিমুনের প্ল্যান করেছেন, যাবার আগে মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি...

৩১ ডিসেম্বরের মধ্যেই সেই কাজ করে ফেলতে হবে। তা না হলেই নিক্রিয় হয়ে যাবে আপনার প্যান কার্ড। প্যান কার্ড একবার নিক্রিয় হয়ে গেলে যে সমস্ত লেনদেনে আদার বাধ্যতামূলক সেই তাজগুলি আর করা যাবে না। 

যার ফলে ব্যাঙ্কে গিয়ে টাকা জমা দেওয়ার ক্ষেত্রেও বিপাকে পড়তে হবে আপনাকে। 

এছাড়াও ডেবিট এবং ক্রেডিট কার্ডের আবেদনের ক্ষেত্রেও সমস্যায় পড়তে হবে আপনাকে।

প্যান ব্যবহার করে আয়কর দাখিল করা যাবে না।

শেয়ারের ক্ষেত্রেও ৫০ হাজার টাকার বেশি বিনিয়োগে সমস্যা দেখা যাবে।

আরও পড়ুন-বিয়ের আগে ভুল করেও এইসব খাবার খাবেন না, তাহলেই হতে পারে মারাত্মক বিপদ...

ফিক্সড ডিপোজিট, টাইম ডিপোজিট অথবা বিমার ক্ষেত্রেও ৫০ হাজার টাকার বেশি জমা করা যাবে না।

৫০ হাজার টাকা বা তার বেশি মূল্যের ব্যাঙ্ক ড্রাফট, পে অর্ডারের ক্ষেত্রে নানান সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে।

১ লক্ষ টাকার বেশি মূল্যের সিকিউরিটিজ কেনা বা বিক্রির ক্ষেত্রে এবং ৫০  হাজার টাকার বেশি বিনিয়োগ নিয়েও সমস্যায় পড়তে পারেন।