সারাদেশ জুড়ে চলতি টেলিকম সংস্থাগুলির মধ্যে প্রথম সারিতেই রয়েছে এয়ারটেল। ব্যবসায় আর্থিক চাপ বৃদ্ধির কারণে পরিষেবার মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংস্থা। সোমবার এক বিশেষ বিবৃতিতে প্রকাশ করে সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে। দেশের সমস্ত সার্কেলে ২৩ টাকা প্রিপেড রিচার্জ বন্ধ করেছে সংস্থা। এটাই ছিল এয়ারটেল-এর সবথেকে সস্তার প্ল্যান। এই ২৩ টাকার প্ল্যান বন্ধ হয়ে সমস্ত সার্কেলে এই প্ল্যান পাওয়া যাবে ৪৫ টাকায়। ২৩ টাকার থেকে দাম বেড়ে এই প্ল্যান ৪৫ টাকা করেছে সংস্থা। পুরনো ২৩ টাকা প্ল্যানের সমস্ত সুবিধা পাওয়া যাবে ৪৫ টাকার এই প্ল্যানে।

আরও পড়ুন- নতুন বছরে সহজ এই উপায়ে সাজিয়ে তুলুন নিজের বাড়ি

চলতি মাসে অর্থাৎ ডিসেম্বর মাসেই ২৩ টাকার প্ল্যান চালু করেছিল সংস্থা। ৪৫ টাকার এই প্ল্যানে লোকাল ও ন্যাশনাল ভয়েস কল প্রতি খরচ হবে সেকেন্ডে ২.৫ পয়সা করে। ভিডিও কলে খরচ হবে প্রতি সেকেন্ড ৫ পয়সা। প্রতি এমবি ডেটা ব্যবহারে খরচ হবে ৫০ পয়সা। এসএমএস এর জন্য খরচ হবে লোকালে ১ টাকা এবং ন্যাশনালের জন্য ১.৫ টাকা। এই প্ল্যানের বৈধতা থাকবে ২৮ দিন। 

আরও পড়ুন- অবিশ্বাস্য ফিচার-সহ আসতে চলেছে এই স্মার্টফোন, ফুল চার্জে চলবে টানা ৪৮ ঘন্টা

এই প্ল্যান ছাড়াও ৫৫৮ টাকার প্রিপেড প্ল্যানের বৈধতা কমিয়েছে সংস্থা। এই মাসের শুরুতে ৫৫৮ টাকা প্রিপেড প্ল্যান শুরু করেছিল এয়ারটেল। এই লঞ্চের কয়েক দিনের মধ্যেই বৈধতা কমিয়েছে সংস্থা। এই প্ল্যানের ভ্যালিডিটি এক ধাক্কায় কমেছে ২৬ দিন। তাই বড়সড় রকমের এই বদলের ফলে গ্রাহকদের উপর কেমন প্রভাব ফেলবে, সেই নিয়েই চিন্তিত সংস্থা। বাজারের সমস্ত বকেয়া পরিষোধ করে নিজেদের পসার টিকিয়ে রাখতে এই টেলিকম সংস্থা সক্ষম হবে কি না এই বিষয়ে প্রশ্ন উঠেছে।