নানা অনুষ্ঠান ও আতশ বাজির রোসনাই-এর মধ্যে দিয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানায় সারা বিশ্ব। বড়দিনের উৎযাপন থেকেই শুরু হয়ে যায় নতুন বছর আগমণের এই উৎসব। সেই আনন্দ দ্বিগুণ করে তুলতে ঘরের অন্দোরে  আনতে পারেন বদল। লিভিং থেকে ডাইনিং সব কিছু নতুন উপায়ে সাজিয়ে তুলন। এক নজরে দেখে নিন কি ভাবে নতুন বছরে সাজিয়ে তুলবেন নিজের ঘর।

আরও পড়ুন- হাতের বলিরেখা রুখতে, আজ থেকেই মেনে চলুন ঘরোয়া পদ্ধতি

বাড়ির সবথেকে শান্তির ও নিশ্চিন্তের ঘর বেডরুম। তার জন্য পরিষ্কার পরিছন্ন রাখুন বেডরুমটি। ঘড়ে রাখতে পারেন বুক সেল্ফ, তবে সেখানে রাখতেই হবে একটি ড্রেসিং টেবিল যাতে ঘুম থেকে উঠে সহজেই সেজে-গুজে ঘুড়তে বেড়তে পারেন। জিনিস পত্র রাখার বিশেষ ব্যবস্থা করুন যাতে কোনও কিছু ছড়িয়ে ছিটিয়ে না থাকে। ঘরের এক কোনায় রাখুন একটি ছোট্ট ডাস্টবিনও। উৎসবের মরশুমে অনেকের বাড়িতেই আত্মীয়েরা এসে থাকে। ঘুরতে যাওয়া ছাড়া দিনের বেশিরভাগ সময়টা লিভিং রুমে কাটাতেই পছন্দ করে থাকেন। তাই বাড়ির মধ্যে এই ঘরটিকে বিশেষভাবে সাজিয়ে তুলুন। এই ঘরে এমন কিছু আসবাব রাখুন যা দেখতে স্মার্ট লাগবে এবং যা স্মার্ট করে তুলবে। সোফা থাকলে তার জায়গা পরিবর্তন করে এমনভাবে রাখুন যা থেকে অনেকটা জায়গা পাওয়া যাবে। সোফার কভার হিসেবে বেছে নিন ম্যাট ফিনিস কভার যা একটা রয়্যাল লুক দেবে। ব্যবহার করতে পারেন লুডো সোফাও। যা ঘরটির চেহরায় বদল এনে দেবে।

আরও পড়ুন- থাইরয়েডের সমস্যা রয়েছে, মুক্তি পেতে মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি

বাড়ির আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গা হল এটি। নিজের পছন্দের রান্নাঘড়টিকে পরিষ্কার রাখুন। গুছিয়ে রাখুন সব জিনিসপত্র। এছাড়াও ফ্রিজে সব সময় অল্প কিছু খাবার রাখুন। যাতে বাড়িতে কেউ এলে খাবার আনতে বাইরে যেতে না হয়। ব্যবহার করুন নিজের রান্নাঘর। এবার গুছিয়ে ফেলুন ডাইনিং। উৎসব মানেই খাওয়া দাওয়া আর তার জন্য নজর দিতে হবে ডাইনিং -এ। এই ডাইনিং -কে এমনভাবে সাজিয়ে তুলুন যাতে এক সঙ্গে অনেকে বসে খাওয়া-দাওয়া করতে পারে। আর তার সঙ্গেই যেন জমে ওঠে খেতে সেই আড্ডা। সেই সঙ্গে নজরে রাখতে হবে বারান্দা বা ব্যালকনি। সেখানে রাখতে পারেন গাছ। যা দেখতে বেশ সুন্দর লাগে। সুন্দর সাজানো গোছানো বারান্দাতেই কেটে যাবে অনেকটা সময়। জমে উঠবে বর্ষশেষের পার্টিও।