পুজোয় রাস্তায় বেশ কিছুটা সময় কাটাতে হয় অনেককেই। শুধু তাই নয়, সঙ্গে আবার পরিবারের মহিলাদের রান্না না করার নানা বাহানা দেখা দেয়। এই পরিস্থিতিতে  রাস্তায় খাবার খাওয়া ছাড়া আর কোনও উপায় থাকে না। কিন্তু পুজোর বিক্রি বেশি। তাই তারাতারি খাবার পাতে দিতে আগে থেকেই রান্না করে রাখা হয় বিস্তর। কখনও তা শেষ হয়, কখনও আবার হয় না।

আরও পড়ুনঃ পুজোর আড্ডা জমিয়ে তুলতে চলে আসুন সিয়েনা ক্যাফে-তে

এই পরিস্থিতিতে পুজোর সময় শরীর সুস্থ রাখতে বেছে নিতে পারেন এই খাবারগুলোঃ
১) কোনও হোটেলে বা রেস্তোরাতে খেতে গেলে অবশ্য বেছে নিন চাইনিজ। কারণ এটি একমাত্র পদ যা তখনই রান্না করে দিতে হয়। ফলে তা নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। 
২) মিষ্টির দোকানে খাবার খাওয়া যেতে পারে। যেমন চাট,  কচুরী প্রভৃতি। কারণ মিষ্টির দোকানেও গরম গরম চোখের সামনেই তৈরি করা হয় এই ধরনের খাবারগুলো।
৩) ফুচকা-চুরমুর তো পুজোয় লেগেই থাকে। কিন্তু রাস্তার তৈরি চপ, তেলে ভাজা এড়িয়ে চলতে হবে শরীর ভালো রাখতে। রাত জাগার ফলে তা থেকে হজমের সমস্যা দেখা দিতে পারে।
৪) খাওয়া যেতে পারে সাউথ ইন্ডিয়ান ফুড। ধোসা, বড়া, এগুলোর সেল তুলনামূলকভাবে কম থাকে। তাই এই ধরনের খাবার খুব একটা বেশি মাত্রায় তৈরি হয় না। 
৫) আইস্ক্রিম, পেস্ট্রি, কেক, মেদ নিয়ে মাথা না ঘামালে এই খাবারগুলো রাখতেই পারেন খাদ্যতালিকাতে। তাই বলে রাস্তার বরফ ব্যবহার করা হয় এমন ধরনের পানীয় কিংবা আইস্ক্রিম না খাওয়াই ভালো।

৬) শরীর সুস্থ রাখতে অতি-অবশ্য চেষ্টা করবেন দুপুরে বাইরে খেতে, রাতে নয়। কারণ অধিকাংশ জায়গায় সকালে বেশি করে রান্না করা থাকে, তা রাত পর্যন্ত চালিয়ে দেওয়া হয়। যার ফলে খাবার টাটকা থাকার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যায়।