অনেকেই বিশ্বাস করেন যে,ভারতের কিছু মন্দির আছে যেখানে রীতিমত অলৌকিক কিছু জিনিস লক্ষ করা যায়।  প্রত্যেকেই মন্দির যান ঈশ্বরের কাছে তাদের পার্থনা জানানোর জন্য। কিন্তু তারা সেখানে গিয়ে নাকি  কিছু ভৌতিক লক্ষণ খেয়াল করেন।    

অনেকের মতে, মন্দিরগুলি কখনও কখনও নিজেই কিছু অলৌকিক মুহূর্ত সৃষ্টি করে।আর এরই মধ্যে অন্যতম রাজস্তানের  মেহেন্দিপুর বালাজি টেম্পল।  ভূতে বিশ্বাসী কিছু মানুষ  অনেকেই এই মন্দিরে প্রায়শই যান।তারা একবার সেখানে গেলে এক অমোঘ টান অনুভব করেন। তারপর সেই মন্দির প্রাঙ্গন ছেড়ে বেরিয়ে আসার পরও সেই আকর্ষণ থেকে বেরিয়ে আসতে পারেন না। কোনও এক অশুভ শক্তি নাকি তাদের পিছন থেকে টেনে ধরে।  

মালরাজ পুরের দেবজি মহারাজ মন্দির কিছু জনের মত অনুযায়ী নাকি এইসবেরও উপরে। প্রতি বছর এখানে নিয়ম করে ' ভূত মেলা' বসে। পূর্ণিমার রাতে মানুষ এখানে আসেন, নিজেদের সুস্থ করতে। তারা নাকি এখানে কিছু অলৌকিক শক্তি অনুভব করেন। এদের মধ্যে অনেকই এখানে নাকি আত্মা ঘুরে বেড়াতে দেখেন। আবার অনেকেই যারা ঝাড়ফুঁকে বিশ্বাস রাখেন। অনেকেই মধ্যপ্রদেশের দত্তত্রেয়া মন্দিরে যান, যারা মনে করেন এই সবের মধ্যে দিয়েই তারা তাদের মনস্কামনা পূর্ণ হবে।