গোটা বিশ্বের কাছে এক ভয়ঙ্কর নাম এই করোনা। এই নামটা শুনলেই প্রত্যেকেই যেন আতঙ্কিত।  নভেল করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে। চিন সহ গোটা বিশ্বেই ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস।  আর এই ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে করোনা ভাইরাস নিয়ে ভুল ও বানানো তথ্যে ভরে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া।  আর যার কারণে হু হু বাড়ছে আশঙ্কা।  স্বভাবতই যা নিয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছে সাধারণ মানুষ। এই পরিস্থিতিতে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিল গুগল।

আরও পড়ুন-চিনের পর দক্ষিণ কোরিয়া, করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০০-র বেশি মানুষ...

সাধারণ মানুষ যাতে করোনা ভাইরাস নিয়ে ভুল তথ্য শুনে অযথা আতঙ্কিত না হয়ে পড়েন সেই কারণেই বড় পদক্ষেপ নিল গুগল। ভুল তথ্যের প্রচার যাতে বন্ধ হয় সেই কারণেই প্লে স্টোর থেকে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সমস্ত অ্যাপ ব্লক করে দিল গুগল। শুধু তাই নয়, সার্চ রেজাল্টেও করোনা ভাইরাস নিয়ে কোনও ফলাফলও দেখাবে না বলে জানিয়েছে এই তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা। একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গুগল প্লে স্টোরে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সার্চের ফলাফলও ইতিমধ্যে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আর কেউ যদি কেভিড-১৯ দিয়ে সার্চও করে তাহলেও আরও কোনও ফলাফল দেখাবে না।

আরও পড়ুন-ওজন বশে রাখতে চান, রাতের খাওয়ার আগে মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি...

যদিও করোনাভাইরাস নিয়ে শুরু থেকেই সচেতন ছিল গুগল । এমনকী করোনাভাইরাসে বিস্তার  বন্ধ করতে তাদের ইউজারদের বাড়ি থেকে কাজ করতেও অনুরোধ জানিয়েছে গুগল। এছাড়াও গ্রাহকদের করোনা ভাইরাস  সংক্রান্ত বিষয়ে সতর্ক করতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে মিলিত উদ্যোগে 'এসওএস অ্যালার্ট ফর করোনাভাইরাস' সাভির্স চালু করেছে। যেখান থেক গুগল ও টুইটারে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত যে কোনও বিষয় সার্চ করলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সেফটি টিপস ও তথ্যও পাওয়া যাচ্ছে।

আরও পড়ুন-শিশুর গলায় আটকে গেছে মাছের কাঁটা, সমস্যা সমাধানে যা করবেন...

ইতিমধ্যেই এই রোগকে মহামারি বলে চিহ্নিত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। করোনা ভাইরাসের আঁতুড়ঘর চিন। এই নিয়েই উদ্বেগ ছড়াচ্ছে ক্রমশ। চিকিৎসক মহলের দাবি, আক্রান্তের তুলনায় মৃত্যুর হার সার্সের সময় অনেক বেশি ছিল।  করোনা ভাইরাসের ফলে যে বিপুল সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন তার তুলনায় মৃত্যুর হার যথেষ্ঠই কম।  কিন্তু এই ভাইরাস অতি দ্রুত ছড়াচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে একাধিক নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফ থেকেও জানানো হয়েছে কোনও ভারতীয় যেন চিনে না যায়।   অন্যদিকে করোনা ভাইরাস নিয়ে জাতীয় স্তরে হেল্পলাইন নম্বরও চালু করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস 'ইউহান করোনা ভাইরাস' বা 'চিনা করোনা ভাইরাস নয়', এবার নয়া নামকরণ হল করোনা ভাইরাসের। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী এই করোনা ভাইরাসের অফিশিয়াল নাম 'কোবিড-১৯'।  এই আতঙ্কের মধ্যে সুখবর শুনিয়েছে  বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থা। দেড় বছরের মধ্যেই এই ভাইরাসের প্রতিষেধক টিকা আবিষ্কার করে ফেলবেন বিজ্ঞানীরা। কিন্তু তাতেও কিছু হচ্ছে না । মৃত্যু সংখ্যা যেন  লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে