সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য অনেকেই হেয়ার কালার করেন। হেয়ার স্টাইলিং-এর অন্যতম একটি পর্যায় হল এই হেয়ার কালার। একটা সময় ছিল সাদা চুল ঢাকার জন্য চুলে ডাই করা হতো। কিন্তু বর্তমানে সেই হেয়ার কালার ফ্যাশন হয়েছে। নিজের লুকের মর্ডান ফ্যাশনেবল আপডেট করতে হেয়ার স্টাইলিস্টরা হেয়ার কালার-এর পরামর্শ দেন। তবে জানলে অবাক হবে চুলের ক্রমাগত রাসায়নিক ব্যবহারের ফলে বৃদ্ধি পাচ্ছে ক্যানসারের ঝুঁকি। এই বিষয়ে আমেরিকার এক মেডিকেল জার্নালে এই ক্যান্সারে বিষয়ে হেয়ার কালার-এর প্রভাবের বিষয়ে প্রকাশিত করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন- ঠাণ্ডায় শরীর সুস্থ রাখতে, পাতে রাখুন এই পাঁচ উপাদান

আমেরিকার মেডিকাল জার্নালে প্রকাশিত সমীক্ষা থেকে জানা গিয়েছে, হেয়ার স্টাইলিং এর জন্য ব্যবহৃত প্রোডাক্টগুলির মধ্যে যে রাসায়নিকগুলো ব্যবহার করা হয় তাতে বৃদ্ধি পায় ক্যান্সারের ঝুঁকি। এই রাসায়নিকগুলির মধ্যে এন্ডোক্রাইন সিস্টেমকে দুর্বল করার সম্ভাবনা থাকে। এর মধ্যে ডায়ামিনোসেল সালফেট এবং প্যারা-ফেনিল্যান্ডামাইন-এর উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। এই উপাদানগুলি ইঁদুরের উপরে পরীক্ষা করার পরেই এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন মার্কিন গবেষকরা।

আরও পড়ুন- নতুন বছরে চাই স্পেশ্যাল কেয়ার, রইল পুরুষদের কিছু বিশেষ টিপস

জাতীয় পরিবেশ বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীদের করা গবেষণার ফলে জানা গিয়েছে, ৩৫ থেকে ৭৪ বছরের মহিলাদের মধ্যে এই হেয়ার কালার ব্যবহার করার প্রবণতা সবথেকে বেশি। আর এই বয়সী মহিলাদের মধ্যে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতাও সবথেকে বেশি।  এই সমীক্ষা প্রায় ৪৬,৭০৯ জন মহিলার মধ্যে করা হয়েছিল। এই সমীক্ষা এদের মধ্যে প্রায় ১ বছর ধরে চালানো হয়েছিল। এমন একটি সমীক্ষা থেকেই গবেষকরা এই সিন্ধান্তে উপনীত হয়েছেন।   চুলের ক্রমাগত রাসায়নিক ব্যবহারের ফলে বৃদ্ধি পাচ্ছে ক্যানসারের ঝুঁকি, বিশেষ করে স্তন ক্যান্সার।