গরমে ঘাম হবে একথা তো খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু তারও একটা সীমা রয়েছে। অতিরিক্ত ঘাম হওয়া মোটেই ভাল কথা নয়। সেরকম হলে অবিলম্বে চিকিৎসক্র পরামর্শ নিন। জেনে নিন অতিরিক্ত ঘাম হওয়া কোন কোন রোগের লক্ষণ হতে পারে। 

হৃদরোগ-  যদি হঠাৎ করেই অস্বাভাবিক হারে ঘামতে থাকেন তাহলে যে রোগের কথা সবচেয়ে আগে মাথায় আসে তা হল হৃদরোগ। হঠাৎ করে স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি ঘাম হওয়া হৃদরোগের লক্ষণ হতেই পারে, তবে অবশ্য সব ক্ষেত্রে তা নয়। কাজেই এ বিষয়টি অবহেলা করা একেবারে ঠিক নয়। বিশেষ করে আজকের দিনে বয়স ৪০ হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রকাশ করে। সেইসঙ্গে উচ্চ রক্তচাপ, ধূমপানের অভ্যাস কিংবা পরিবারে কারওর হৃদরোগের সমস্যা থাকলে এই ঝুঁকির কথা এড়িয়ে যাওয়া উচিত নয়। 

স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে ইদের মরশুমে চেখে দেখুন এইসব বাহারি খাবার

ডেস্কে বসে একভাবে কাজ করেন- জেনে নিন কী কী সমস্যা ডেকে আনছেন

মধুমেহ- আচমকাই অস্বাভাবিক হারে ঘাম হতে শুরু করলে তা টাইপ ১ এবং টাইপ ২ ডায়াবেটিসের লক্ষণ হতে পারে। তবে শুধু ডায়াবেটিসই নয়, অনেকের আবার রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা স্বাভাবিকের চেয়েও অনেক কম থাকলেও অতিরিক্ত ঘাম হয়ে থাকে। বিশেষজ্ঞরা বলেন, অতিরিক্ত ঘাম হওয়া রক্তে নিম্নমাত্রার গ্লুকোজের লক্ষণ প্রকাশ করতে পারে। সেইজন্য অবিলম্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ- অনেকেই হয়তো জানেন না ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের ফলেও কিন্তু অতিরিক্ত ঘাম হতে পারে। ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের ক্ষেত্রে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারেও ফল মিলতে পারে। তবে অতিরিক্ত ঘাম হলে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের বিষয়টি মাথায় রেখে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।