ব্রেকফাস্টে কী খাওয়া যায় এই নিয়ে অনেকেই ধন্দে ভোগেন। ব্রেকফাস্টেই সবচেয়ে পেট ভরা এবং স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। ব্রেকফাস্ট বা বিকেলের স্ন্যাক্সে তাই চাইলেই খেতে পারেন আপেল ও পিনাট বাটার। 

আপেলে প্রচুর পরিমাণে কার্ব ও ফাইবার থাকে। অন্য়দিকে পিনাট বাটারে থাকে ফাইবার, প্রোটিন, ফ্যাট। এছাড়াও এই খাবার দুটিতে পাওয়া যায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, মিনারেল। তাই এই দুই খাবার একসঙ্গে খেলে যে বিশেষ উপকারিতা পাওয়া যায় তা বলাই বাহুল্য। 

আরও পড়ুনঃ যে ৫ কারণে যুবতীরা অবশ্যই খান হট চকোলেট

একবার দেখে নেওয়া যাক আপেল ও পিনাট বাটারে কী কী উপাদান থাকে- 

আপেল- কার্বস, ফাইবার, প্রোটিন, ফ্যাট, ভিটামিন সি, পটাশিয়াম, ভিটামিন কে। 

পিনাট বাটার- কার্বস, প্রোটিন, ফ্য়াট, ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন বি৩, ফাইবার, ভিটামিন ই, ফসফরাস, পটাশিয়াম। 

আপেল ও পিনাট বাটার দুটিরই পুষ্টিগুণ দারুণ। একসঙ্গে এই দুটি খাবার খেলে প্রোটিন, ফ্যাট ও ফাইবার ব্যালেন্সে থাকে বলে জানাচ্ছেন পুষ্টিবিদরা। 

দেখে নেওয়া যাক কী কী উপকারিতা পাওয়া যায়- 

১) ব্লাড সুগার কনট্রোল বা রক্তে শর্করার হার ঠিক রাখতে এই খাবারের জুড়ি মেলা ভার। নিয়মিত ফল খেলে ও যে কোনও ধরনের বাদাম খেলে ব্লাড সুগার কনট্রোলে থাকে। 

২) আপেল ও পিনাট বাটার দুটোর মধ্যেই প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে।  তাই দুটো একসঙ্গে খেলে হজমের সমস্যাও দূর হয় সহজে। হজম শক্তি বাড়াতে নিয়মিত এটি খেতেই পারেন। 

৩) হার্টের অলুখের সমস্যা হলও খেতে পারেন এই আপেলের সঙ্গে পিনাট বাটার। 

৪) যাঁরা ওজন কমাতে চান বা ওবেসিটির শিকার তাঁরাও খেতে পারেন আপেলের সঙ্গে পিনাট বাটার।  ফাইবার, প্রোটিনে ভরা এই খাবার শরীরে শক্তির জোগান দিলেও ওজন বাড়িয়ে দেয় না ।