রান্না করার সময় অনেকসময়েই অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। বাড়ির গৃহিনীরা  তাড়াতাড়ি রান্নার করার জন্য নানা ধরণের ট্রিকস ব্যবহার করে থাকেন। চটজলদি রান্না করার জন্য প্রতিদিন এই ট্রিকসগুলি খুবই কার্যকরী। শুধু চটজলদি রান্নাই নয়, রান্নায় ব্যবহৃত সব্জি থেকে ফল কীভাবে ভাল রাখা যায়, রইল তার কিছু টিপস।

আরও পড়ুন-ফের দাম কমল সোনার, বিয়ের মরশুমে মুখে হাসি মধ্যবিত্তের...

রান্নার কয়েকটি টিপস

অমলেট বা কেকের জন্য ডিম ফেটাবার সময় দু ফোঁটা লেবুর রস দিয়ে দেবেন। রান্নার স্বাদ যেমন অন্যরকম হবে তেমনই গন্ধ চলে যাবে।

যে পাত্রে ডিম ফেটানো হয়েছে সেই পাত্রে যদি চা ও সামান্য জল রাখা হয় তাহলে মাজার সময় আঁশটে গন্ধ বেরোবে না।

নারকেল ভাঙার আগে জলের মধ্যে কিছুক্ষণ রেখে দিন। দেখবেন ভাঙার সময় সমান ভাবে দু টুকরো হয়ে ভাঙবে।

কুরিয়ে নেওয়া নারকেল একটা পাত্রে রেখে সারাদিন কড়া রোদে রেখে দিন। এবার একটি কাঁচের পাত্রে নারকেল রেখে দিলে একমাস নারকেল ভাল থাকবে।

ঝুনো নারকেল ভাঙা টুকরো নুনের পাত্রে ফেলে দিন। চার-পাঁচদিন ভাল থাকবে।

 

আরও পড়ুন-ফ্রিজ থাকবে নতুনের মতোন, মেনে চলুন এই নিয়মগুলি...

তাড়াতাড়ি আলু সেদ্ধ করতে হলে এক চামচ ভিনিগার দিয়ে আলু সেদ্ধ করে নিন। এতে আলু গলবেও না ফাটবে না।

আলুর দম করতে হলে আলু সেদ্ধ করে খোসা ছাড়িয়ে আধঘন্টা একবাটি নুন জলে চুবিয়ে রেখে দিন। তারপর রান্না করুন। অসামান্য স্বাদ হবে।

খোসা শুদ্ধ আলু সেদ্ধ করার সময় আগে একটু নুন দিন। খোসা ছাড়াতে সুবিধা হবে। আলু কেটে নুন মেশালে তা কালো হয়ে যাবে না।

করলা যদি খুব তেতো হয়, তাহলে তা টুকরো করে চালধোয়া জলে ডুবিয়ে রাখুন। অতিরিক্ত তেতোভাব কমে যাবে।

ফুলকপি রান্নার আগে টুকরো করে নুন জলে ডুবিয়ে রাখুন। পোকামাকড় থাকলে বেরিয়ে যাবে।

কচু কাটতে গেলে হাত চুলকানো একটা স্বাভাবিক ঘটনা। এর হাত থেকে বাঁচতে কচু কাটার সময় হাতে সর্ষের তেল মেখে নিন।

আপেল বেশ কিছুদিন তাজা রাখতে গেলে সাধারণ তাপমাত্রার মধ্যে আপেলগুলিকে ডুবিয়ে রাখুন। তারপর শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে নিন। এবার আরেকটি শুকনো কাপড়ের মধ্যে দু-চার ফোঁটা তেল দিয়ে সেই কাপড়ের গায়ে ঘষে দিন, অনেকদিন ভাল থাকবে।