হুন্ডাই ক্রেটা লঞ্চ হয়েছে সদ্য এই মাসেই এবং এর মধ্যেই এই গাড়ির চাহিদা ঈর্ষণীয়। হুন্ডাই ইতিমধ্যেই ১৪,০০০ এর বেশি অর্ডার পেয়েছে ক্রেটার। এইসব তথ্য ইঙ্গিত দেয় যে হুন্ডাই ক্রেটা এই ধরণের এসইউভি গাড়ির যে সেগমেন্ট তার শীর্ষ স্থানে পৌঁছবে অচিরেই এবং ছিনিয়ে নেবে কিয়া সেল্টোর স্থান। সবে শুরু হয়েছে ক্রেটার পথ চলা, আরও কত তিরুপের তাস রয়েছে সংস্থার ভাবনা চিন্তায় তা জানা নেই সেইভাবে। তবে সাউথ কোরিয়ার এই সংস্থার চিন্তাভাবনায় দুটি নির্দিষ্ট সেগমেন্ট নিয়েই নতুন প্রতিযোগিতায় মুখোমুখি হওয়ার ইচ্ছে আছে; প্রিমিয়াম এসইউভি অর্থাৎ টয়োটা ফরচুনার-এর সঙ্গে এবং প্রিমিয়াম এমপিভি অর্থাৎ কিয়া কার্নিভাল-এর সঙ্গে তখন শুরু হবে নতুন প্রতিদ্বন্দ্বিতা। কিয়া কার্নিভালও সবে এসেছে বাজারে।  
এর আগেও প্রিমিয়াম এসইউভি সেগমেন্টে তারা নেমে ছিল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কিন্তু সফল হয়নি। সান্তাফে গাড়িটির ব্যর্থতা দেখে তাদের সফল হওয়ার ভাবনাচিন্তা শুরু। অতীতের ব্যর্থতার পিছনে অনেক কারণ ছিল কিন্তু হুন্ডাইয়ের সিইও ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর এস এস কিম চান  সমস্যার সমাধান। পড়ে, বুঝে, শিখে এগোতে চান তারা। চাহিদা, ক্রেতার প্রতিক্রিয়া ও ভালোলাগা সবটুকু নিয়ে ভাবনাচিন্তা করে এই সেগমেন্টে নতুন কিছু নিয়ে আসবে হুন্ডাই ইন্ডিয়া।

শুধুমাত্র প্রিমিয়াম এমপিভি ও এসইউভি নয়, মাল্টিসিটার ভেহিকেল নিয়েও তাদের চিন্তাভাবনা আছে। তাই নির্দিষ্ট করে কোনওকিছুর ঘোষণা না করে তারা ভাবনা চিন্তায় রেখেছে বেশ কিছু বিকল্প। তবে হুন্ডাই এই বছরেই নতুন কোনও সেগমেন্ট আনছে না, অদূর ভবিষ্যতে অবশ্যই আসছে নতুন কিছু, সে এসইউভি বা এমপিভি হোক কিংবা মাল্টি সিটার গাড়ি।