থাইওয়েড গ্রন্থি বা থাইরয়েড হল অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি যার অবস্থান গলায়। পুরুষের এডাম'স এপলের ঠিক নিচে এর অবস্থান। থাইরয়েড গ্রন্থি থেকে থাইরয়েড হরমোন নিঃসৃত হয়। এই হরমোনগুলো মেটাবলিক রেট ও প্রোটিন সিন্থেসিসকে প্রভাবিত করে। থাইরয়েড হরমোনের মধ্যে ট্রাইডোথাইরোনাইন  টি-থ্রি ও থাইরক্সিন  টি-ফোর আয়োডিন ও টাইরোসিন দ্বারা গঠিত হয়।থাইরয়েড ক্যালসিটোনিন নামক এক ধরনের হরমোন তৈরি করে যা ক্যালসিয়াম হোমিওস্ট্যাসিসে প্রভাব ফেলতে সক্ষম।

আরও পড়ুন- হেয়ার কালার বাড়িয়ে তুলছে ক্যান্সারের ঝুঁকি, সমীক্ষায় মিলল চাঞ্চল্যকর তথ্য

থাইরয়েডের সমস্যায় অনেকের মধ্যেই বর্তমানে লক্ষ্য করা যায়। নির্দিষ্টি পরিমানের তুলনায় কম বা বেশি পরিমানে হরমোন নিঃসৃত হলেই শুরু হয় থাইরয়েডের সমস্যা। চিকিৎসকদের মতে, মহিলাদের মধ্যে এই সমস্যার পরিমান অনেক বেশি। সাধারন কিছু নিয়ম মেনে চললে খুব সহজেই কাবু করা যায় থাইরয়েডের এই সমস্যাকে। এর জন্য পরিবর্তন আনতে হবে আপনার খাবার পাতে। তবেই খুব সহজেই নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন থাইরয়েডের সমস্যা। জেনে নেওয়া যাক উপায়গুলি-

আরও পড়ুন- ঠান্ডায় শরীর সুস্থ রাখতে, পাতে রাখুন এই পাঁচ উপাদান

থাইরয়েডের সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে প্রয়োজন রাতে পর্যাপ্ত পরিমানে ঘুম। যদি আপনার রাতে ঘুমের সমস্যা থাকে তবে দিনের বেলায় ঘুমিয়ে নিন। শরীরে পর্যাপ্ত বিশ্রামের ঘাটতি দেখা দিলেই এই সমস্যা বৃদ্ধি পেতে পারে। এছাড়া খাবার পাতের রাখুন প্রোটিন সমৃদ্ধি খাবার। প্রতিদিনের ডায়েটে রাখুন, চিজ, পনির, ডিম, চিকেন- এই ধরনের খাবার থাইরয়েড গ্রন্থি থেকে হরমোন নিঃসরনের ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। এছাড়াও প্রতিদিন শরীরচর্চা ও ব্যায়াম করা অত্যন্ত জরুরী। থাইরয়েডের সমস্যা থেকে থাকলে প্রতিদিন নিয়ম করে হাঁটুন, সাইকেলিং বা সাঁতার খুবই প্রয়োজন। এছাড়া খাওয়ার সময় আয়োডিন সমৃদ্ধ লবন রান্নায় ব্যবহার করতে পারেন। সামুদ্রিক মাছ, সবুজ শাকসবজি, ফল, দুধ, স্ট্রবেরি আয়োডিন সমৃদ্ধ খাবার। তাই থাইরয়েড নিয়ন্ত্রণে রাখতে মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি। তবে সমস্যা এড়াতে অবশ্যই পরামর্শ নিন চিকিৎসকের।