ইতিমধ্যেই পুজোর দিন গুনতে শুরু করেছে সকলে। মা দুর্গা এবার এল বলে। জামা কাপড় থেকে মেক আপ, প্যান্ডেল হপিং সব একেবারে সেট। তবে নতুন জামা কাপড়ের সঙ্গে মানান সই ব্যাগ কিন্তু মাস্ট। ব্যাগ শুধুমাত্র আপনার লুককে বাড়াবে তাই নয়, প্রতিক্ষত্রে কাজেও লাগবে। খুব সহজেই ব্যাগে ভরে নিতে পারবেন মেক আপ কিট, জল, ছাতা, ওষুধ, পাওয়ার ব্যাঙ্কের মত বেশ কিছু অতি প্রয়োজনীয় জিনিস। তবে পুজোয় ব্যাগ কেনার আগে বেশ কিছু ভাবনা চিন্তারও দরকার। কারণ শুধুমাত্র পুজোয় বেরনোর জন্যই নয় সারা বছর ব্যবহার করতে পারবেন এমন ব্যাগ কেনাই কিনুন। 

ব্যাগের মধ্যে এখন ফ্যাশনে রয়েছে লেদার ব্যাগ যা সহজে পুরনো হয় না। যে কোনও রঙের সব পোশাকের সঙ্গে সহজেই মানিয়ে যায় এই লেদার ব্যাগ। সারাদিন অফিস, সন্ধেবেলার পার্টি হোক বা পুজোয় ঠাকুর দেখা সবক্ষেত্রেই মানান সই লেদার ব্যাগ। শুধু মার্কেটেই নয় অনলাইনেও পেয়ে যাবেন লেদার ব্যাগের বিভিন্ন কালেকশন। 

মেয়েদের পার্স হল একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। বড় ব্যাগের ভিতর একটা পার্স অবশ্যই রাখা চাই। অনেকে আবার বড় ব্যাগ বইতে না চাইলে হাতে স্রেফ একটা লেদার পার্স নিয়েও বেড়িয়ে যেতে পারেন।  তাই পার্স কেনার সময় সবসময় মাথায় রাখতে হবে কিছু বিষয়। পার্সে যেন অবশ্যই দু তিনটি চেন থাকে। এছাড়াও মোবাইল আর কার্ড রাখার জন্য যেন অবশ্যই আলাদা জায়গা থাকে। ৩০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে পেয়ে যাবেন এই পার্স। 

 

পুজোয় ঠাকুর দেখতে বেরনোর সময় বড় ব্যাগ অনেক ক্ষেত্রেই আপনার লুক নষ্ট করতে পারে। তাই কাঁধে নিয়েই নিতে পারেন একটি স্লিং ব্যাগ। শাড়ি হোক বা জিন্স সব ফ্যাশনেই জায়গা করে নিয়েছে স্লিং ব্যাগ। ছোটোর মধ্যে একটি স্লিং ব্যাগ হলেই চলে। যার মধ্যে সহজেই একটি ছাতা, হালকা মেক আপের সরঞ্জাম, ফোন ইত্যাদি নিয়ে নিতে পারেন। খুব বেশি নয় এই ব্যাগের দাম পড়বে ৫০০ থেকে ১৫০০ টাকার মধ্যে।

পুজোয় আবার অনেকেই কাছাকাছি কোথাও ঘুরে আসার পরিকল্পনা করেন। তবে সে পরিকল্পনা যদি থাকে তাহলে কিনে নিতেই পারেন একটা স্মার্ট লুকের ল্যাপটপ ব্যাগ। যার মধ্যে সহজেই ল্যাপটপ, ফোন এবং হালকা জামাকাপড়ও নিয়ে যাওয়া সম্ভব। ১০০০ থেকে ২০০০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন এই ব্যাগ গুলি।