অনেকেই আছেন যারা কর্মসূত্রে রাত জেগে কাজ করে থাকেন, তাদের ক্ষেত্রে সমস্যাটা অন্যরকম। দিনের বেশ কিছুটা সময় ঘুমিয়ে নিন। দেখবেন সহজেই মিলবে স্বস্তি। কিন্তু দিনে যদি নূন্যতম ঘুমের পরিমাণকে পূরণ করেত পারা সম্ভব না হয়, তবে সেক্ষেত্রে বাড়বে সমস্যা। তবে সে সমস্যা কোনও সাধারণ সমস্যা নয়, ক্রমেই বেড়ে যেতে পারে মৃত্যুর ঝুঁকি। তাই এই বিষয়টি মাথায় রেখেই প্রত্যহ অনন্ত পক্ষে ছয় ঘন্টা ঘুমোনের চেষ্টা করুন।

জেনে নিন দিনে নির্দিষ্ট সময় না ঘুমলে কী কী সমস্যার সন্মুখীন হতে পারেন আপনিঃ
১. যারা বেশি রাত পর্যন্ত জেগে থাকেন বা নিয়মিত ছয় ঘন্টা ঘুমন না, তাদের মধ্যে ৯০ শতাংশ মানুষই মানসিক রোগে আক্রান্ত হয়ে পরেন।
২. মাইগ্রেনের সমস্যা বাড়ে, অযথা মাথা ব্যাথা, গা বমি ভাব, প্রভৃতি সমস্যা দেখা দেয় পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমের অভাবে।
৩. যারা দিনে কম ঘুমন, এক সমীক্ষা অনুযায়ী তাদের মৃত্যু হার সবথেকে বেশি। সেই দিকে নজর রেখেই এবার থেকে নিয়মিত ঘুমের অভ্যাস করুন। 
৪. শুধু যে ছয় ঘন্টা ঘুমোলেই হবে এমনটা নয়, চেষ্টা করুন রাতের বেলায় ঘুমোনোর। শরীর সুস্থ থাকবে, কমবে শারীরিক সমস্যা।
৫. পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমের অভাব ঘটলে কাজের উদ্যোগ নেওয়ার ক্ষমতা কমে। কাজের ইচ্ছাশক্তিরও হ্রাস হয়। 
৬. যারা কঠিন রোগে ভুছেন তাদের পক্ষে বিপদের সম্ভাবনা আরো বাড়িয়ে তুলবে নিয়মিত ঘুমের অভাব।