মারুতি সুজুকি নিয়ে এল জিমনি। আশা করা হচ্ছে খুব তাড়াতাড়ি ভারতের রাস্তায় দেখা যাবে এই গাড়ি।  মারুতি সুজুকি-র একসময়ের জনপ্রিয় গাড়ি জিপসির জায়গা নিতে পারবে কি এই গাড়ি?  অটো এক্সপোতে জিমনি-এর আবরণ উন্মোচিত হয়েছে জিমনি-এর শক্তপোক্ত মাস্কুলার লুক বেশ মনোগ্রাহী হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। ফোর-স্ল্যাট গ্রিল অথবা শক্তিশালী বাম্পার ও সামনের বলিষ্ঠ বাম্পার ড্যাশবোর্ড থাকছে এই গাড়িতে। এখনকার এই ফোর্থ জেনেরেশনের এই গাড়িতে বৃত্তাকার প্রোজেক্টর হেডল্যাম্পের সঙ্গে স্বতন্ত্র ইন্ডিকেটর। বেশ অনেকগুলো ফগ ল্যাম্প রয়েছে বাম্পারে।
তিনটি দরজার জিমনির পার্শ্ববর্তী চেহারাও দারুণ আকর্ষণীয়। ফ্লেয়ারড হুইল আর্চগুলো এবং অ্যালয় হুইল তুলে ধরছে এই গাড়ির মজবুত গড়ন। টেলগেট- মাউন্টেড স্পেয়ার হুইল থাকবে এই গাড়িতে। পরিমিত ল্যাম্প থাকবে ওখানেও।কৌণিক বাম্পারের ধারে চাকার ওপরের ক্লিয়ারেন্স বাড়িয়ে দেয়। এই এসইউভি-এর গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স ২১০ মিমি। 

জিমনি গাড়ির কেবিন খুব চোখ ধাঁধানো নয়। তবে অফ-রোডার চালকের জন্য যা যা প্রয়োজন সব আছে এই গাড়ির কেবিনে- যেমন, মালটিফাংশন স্টিয়ারিং হুইল, টাচস্ক্রিন ইনফোটেনমেন্ট সিস্টেম এবং অটোমেটিক এসি সবই আছে। এবং মাল্টিফাংশন স্টিয়ারিং হুইলের সঙ্গে ভয়েস এবং অডিও কন্ট্রোল আছে এই গাড়িতে।

মারুতি সুজুকির জিমনি এসিউভি-তে বুট স্পেস আছে ৩৭৭ লিটার সঙ্গে রিয়ার সিট ফোল্ড করার সুবিধা আছে।  যদিও সিট ভাঁজ করে না রেখে যদি বাড়িয়ে নেওয়া হয় তাহলে ৮৫ লিটার জায়গা সঙ্গে সঙ্গেই কমে যায়। জিমনি গাড়িতে কে১৫বি, ৫- সিলিন্ডার, ১.৫ লিটার পেট্রল ইঞ্জিন থাকবে। এই ইঞ্জিন ১০২ এইচপি এবং ১৩০ এনএম টর্ক তৈরি করতে সক্ষম এবং ৫-স্পিডের ম্যানুয়াল ট্রান্সমিশন থাকবে।