মারুতি সুজুকি ভিটারা ব্রেজার চেহারা প্রকাশ্যে এসেছিল অটো এক্সপো ২০২০-তে। আগেও ছিল চাহিদার শিখরে, ২০২০ সালে নতুন ব্রেজা সেই ইতিহাস আরো এগিয়ে নিয়ে যাবে বলেই আশা করা হচ্ছে। ভারতের কমপ্যাক্ট এসইউভি সেগমেন্টে ভিটারা ব্রেজা ২০১৬ সালে লঞ্চ হওয়ার পর থেকেই বিক্রির ৫ লাখের সীমা অতিক্রম করে গেছে আগেই।
মারুতি সুজুকি ভিটারা ব্রেজার-এর নতুন টুইন স্লাট গ্রিল নতুনভাবে এলইড প্রোজেক্টর হেডলাইট সমেত ডিজাইন করা হয়েছে। তার ফলে গাড়ির সামনের দিকে কম্প্যাক্ট লুক এসেছে দারুণভাবে। এই ক্লাস্টারগুলো নতুন মডেলে এল শেপড ডিআরএল  দিয়ে আধুনিক চিন্তাধারায় সাজানো হয়েছে। টেল লাইটেও এলইড সিগনেচার রয়েছে। ১৬ ইঞ্চি ডুয়াল টোন অ্যালয় হুইলস আছে, সামনের বাম্পারে সিলভার প্লেট আছে এবং সঙ্গে রয়েছে নকল স্কিড প্লেট। আর একটি গুরুত্বপূর্ণ ফিচার হল- সাত ইঞ্চি স্মার্টপ্লে স্টুডিও সিস্টেম, যা ক্রেতার সুবিধের কথা মাথায় রেখে এমনভাবে আপগ্রেড করা হয়েছে যার মাধ্যমে লাইভ ট্রাফিক আপডেট পাওয়া যাবে, ভয়েস কম্যান্ডস, নেভিগেশন ইত্যাদিও পাওয়া যাবে। এই গাড়ির স্টিয়ারিং হুইল চামড়ার আবরণ থাকবে। অটোমেটিক এয়ারকন্ডিশন এই গাড়িতে রয়েছে। এছাড়া এই এসইউভি গাড়িতে সেমি ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্ট প্যানেল আছে, সঙ্গে মালটিইনফরমেশন ডিসপ্লে, অটোমেটিক হেডল্যাম্পস, রেন সেন্সিং ওয়াইপারস, নতুন এলইড ফগ লাইট, অটোমেটিক ক্লাইমেট কন্ট্রোল, কি-লেস এন্ট্রি, পুশ বটন স্টার্ট অথবা স্টপ। আর সবচেয়ে সুবিধেজনক ব্যাপার হল, এই গাড়ির কেবিনে অনেকখানি জায়গা আগেও ছিল, নতুন ব্রেজাতেও তাই, পিছনের তিনজন যাত্রীর জন্য পর্যাপ্ত জায়গা রয়েছে। পিছনের সিটগুলো ভাঁজ করা যায়, ৬০:৪০ অনুপাতে।

নতুন ভিটারা ব্রেজা গাড়িতে বিএস ৬ নিয়মসিদ্ধ ১.৫ লিটার পেট্রোল ইঞ্জিন আছে যা ১০৫ বিএইচপি এবং ১৩৮ এনএম পিক টর্ক উৎপন্ন করবে।   এই গাড়ির ইঞ্জিনে দু ধরণের বিকল্প আছে- ফাইভ-স্পিড ম্যানুয়াল গিয়ার বক্স  এবং ৪ স্পিড অটোমেটিক ট্রান্সমিশন।  মারুতি সুজুকি ভিটারা ব্রেজা গাড়িতে নতুন প্রোগ্রেসিভ স্মার্ট হাইব্রিড সিস্টেম থাকবে যেখানে লিথিয়াম-ইয়ন ব্যাটারি থাকছে। এই গাড়ির এমটি পেট্রল মাইলেজ হবে ১৭.০৩ কেএমপিএল, আর ফুয়েল এফিসিয়েন্সি  থাকবে ১৮.৭৬ কেএমপিএল।